A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

যুক্তরাষ্ট্র থেকে সিইসির ই-মেইল বিশৃঙ্খলারোধে সেনাবাহিনীকে ইসির চিঠি | Probe News

প্রোবনিউজ, ডেস্ক: চতুর্থ পর্বের ভোটকে সামনে রেখে সিইসি প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ যুক্তরাষ্ট্র থেকে শুক্রবার কমিশনে একটি ই-মেইল পাঠিয়েছেন। ওই ই-মেইলে তিনি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য মাঠ পর্যায়ের সব কর্মকর্তাকে নিজ নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। এদিকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে যেকোনো ধরনের সহিংসতা এবং বিশৃঙ্খলা রোধে সেনাবাহিনীকে অনুরোধ জানিয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পক্ষ থেকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।
সিইসির ই-মেইল পেয়ে শনিবার কমিশন বৈঠকে বসে আলোচনার পর মাঠ পর্যায়ে ওই নির্দেশনা পাঠিয়ে দিয়েছে। উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় পর্যায়ে গোলযোগের পর চতুর্থ পর্যায়েও একই ধরনের ঘটনা ঘটার আশঙ্কা করা হচ্ছে।
রোববার ৪৩ জেলার ৯১ উপজেলায় ভোটগ্রহণের দুদিন আগে সিইসি এই নির্দেশনা দিয়েছেন।
উপজেলা নির্বাচনের মাঝপথে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়া কাজী রকিবের আগামী মাসের শুরুতে ফেরার কথা রয়েছে। তার এই সফর নিয়ে বিভিন্ন মহলে সমালোচনা রয়েছে।
সিইসির ই-মেইলের ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা রিটার্নিং কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজি, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার এবং সেনাবাহিনীর বরাবর পাঠানো হয়েছে।
সিইসি মাঠ কর্মকর্তাদের লিখেছেন- ইতোপূর্বে অনুষ্ঠিত ছোটখাটো ঘটনা ছাড়াই নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। বাকি নির্বাচনগুলো সুষ্ঠু করতে কর্মকর্তাদের সম্পূর্ণ সামর্থ্য দিয়ে কাজ করতে হবে। আইন লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে ত্বরিত ও কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে যেকোনো ধরনের সহিংসতা এবং বিশৃঙ্খলা রোধে সেনাবাহিনীকে অনুরোধ জানিয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পক্ষ থেকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। সেনাবাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার বরাবর এ চিঠি দেওয়া হয়েছে।
শনিবার বিকেলে নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে এক বিফ্রিংয়ে চিঠি দেওয়ার কথা জানান ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনার আবদুল মোবারক।
সারা দেশে চলমান উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় দফা নির্বাচনে সহিংসতার পর এ চিঠি দেওয়া হল। কাল চতুর্থ দফায় ৯১ উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

আবদুল মোবারক বলেন, ‘উপজেলা নির্বাচনে রাজনৈতিক দলের সম্পৃক্ত থাকার কথা নয়। কিন্তু দলগুলোর ভূমিকা প্রকাশ্য। দলগুলোর প্রধান কার্যালয় থেকে প্রার্থীকে উত্সাহ দেওয়া হচ্ছে। এজন্য সহিংসতা হচ্ছে।’
ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বৈঠকে পুলিশের অতিরিক্ত আইজি, সেনাবাহিনী, র্যাব, বিজিবি ও আনসারপ্রধানদের সঙ্গে কথা হয়েছে। কোথাও ব্যালট বাক্স ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটলে গুলি করা হবে। কেউ কালো হাত বাড়ালে তা গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে। অন্যায় করলে আইনের আওতায় আনা হবে। সহিংসতা হলে সেনাবাহিনী সরাসরি হস্তক্ষেপ করবে। তৃতীয় দফা নির্বাচনে যে সহিংসতা হয়েছে, এবার তা হবে না।
আবদুল মোবারক বলেন, ‘দলগুলোর আচরণ নির্বাচনে সহায়ক নয়। আশা করি রাজনৈতিক নেতাদের শুভবুদ্ধির উদয় হবে।’
প্রোব/পার/জাতীয়/২২.০৩.২০১৪

২২ মার্চ ২০১৪ | জাতীয় | ২০:৩৭:০৫ | ১১:৫১:৩০

জাতীয়

 >  Last ›