A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

নিখোঁজ বিমানের বীমার টাকা দিচ্ছে জার্মান কোম্পানি | Probe News

প্রোব নিউজ, ডেস্ক: মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৭৭-এর এমএইচ ৩৭০ বিমান এবং তাতে থাকা ২৩৯ জন আরোহীকে বীমার টাকা দিতে শুরু করেছে জার্মান কোম্পানি ‘আলিয়ান্স’ প্রায় ১০০ মিলিয়ন ইউরোর মতো পাচ্ছে বিমান কোম্পানি ও আরোহীদের পরিবারের সদস্যরা।
সাধারণত আন্তর্জাতিক রুটে চলা সব বিমান এবং তার আরোহীরা বীমার আওতায় থাকেন। বিমানের মূল কাঠামোর পাশাপাশি প্রতি সিট হিসেবে ‘প্যাসেঞ্জার লায়াবেলিটি ইন্স্যুরেন্স’ করা হয়। ফলে কোনো বিমান দুর্ঘটনায় পড়লে বিমানটির মালিক কর্তৃপক্ষ এবং আরোহীরা দু’পক্ষই বীমা কোম্পানির কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ পান। তবে দুর্ঘটনায় বিমান আরোহীর কেউ নিহত হলে তাঁর পরিবার টাকা পেয়ে থাকেন বীমার আওতায়।
মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের এমএইচ৩৭০ বিমানটি এবং আরোহীরাও বীমার আওতায় আছেন। এয়ারলাইন্সটির মূল বীমাকারক প্রতিষ্ঠান আলিয়ান্স। মঙ্গলবার রাতে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, এমএইচ৩৭০ উড়ালের সঙ্গে সম্পৃক্ত বিমান এবং সেটির আরোহীদের বীমার আওতায় টাকা দিতে শুরু করেছে তারা। চলতি সপ্তাহের মধ্যেই টাকা দেয়ার প্রক্রিয়া শেষ করার ইচ্ছাও প্রকাশ করেছে আলিয়ান্স।
বলা বাহুল্য, অর্থনীতি বিষয়ক জার্মান পত্রিকা ‘হান্ডেল্সব্লাট’-এর আগে বীমার টাকা পরিশোধের খবর প্রকাশ করে। এই খবরের সত্যতা স্বীকার করেছে আলিয়ান্স। পত্রিকাটির বুধবারের সংস্করণে জানানো হয়েছে, বোয়িং ৭৭৭-এর এমএইচ৩৭০ বিমান এবং তাতে থাকা ২৩৯ জন আরোহীর পরিবারের জন্য ১০০ মিলিয়ন ইউরোর মতো দেবে জার্মান এই বীমা কোম্পানি।
অবশ্য মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের মূল বীমাকারক আলিয়ান্স হলেও অন্যান্য বীমা কোম্পানিও এক্ষেত্রে সম্পৃক্ত রয়েছে। তাই অর্থ পরিশোধের ক্ষেত্রে আলিয়ান্সকে সহায়তা করছে অন্যান্য কোম্পানি। এই সহায়তার পরিমাণ সম্পর্কে কোনো তথ্য জানায়নি আলিয়ান্স। এ সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে প্রতিষ্ঠানটি বলেছে, বর্তমান ‘মার্কেট প্র্যাকটিস’ এবং বিমানটি নিখোঁজ থাকার বিষয়টি বিবেচনায় রেখেই অর্থ ছাড়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিং যাওয়ার পথে ৮ই মার্চ নিখোঁজ হয় মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৭৭-এর এমএইচ ৩৭০ বিমানটি। মালয়েশিয়া কর্তৃপক্ষ বিশ্বাস করে, ইচ্ছাকৃতভাবে বিমানটির গতিপথ পরিবর্তন করা হয়েছে এবং নিয়ন্ত্রণ কক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পরও কয়েক ঘণ্টা সেটি আকাশে ওড়ে। বিমানটির খোঁজে এখন ২৬টি দেশ জলে এবং স্থলে তল্লাশি চালাচ্ছে। তবে বিমানটি নিখোঁজ হওয়ার সঠিক কারণ এখনো শনাক্ত করা যায়নি।
প্রোব/মুআ/ইন্টারন্যাশনাল ২০.০৩.১৪

 

২০ মার্চ ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ১৮:৪৮:৩৮ | ২০:০৯:৪৮

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›