A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

কোরাম সঙ্কটে ক্ষতি ১০৪ কোটি টাকা: প্রয়োজন আচরণ বিধি নবম সংসদে ২০ শতাংশ বিল পাশ হয়েছে ৩/৪ মিনিটে | Probe News

প্রোব নিউজ, ঢাকা : নবম জাতীয় সংসদে কোরাম সঙ্কটের কারণে আর্থিক ক্ষতি হয়েছে ১০৪ কোটি ১৮ লাখ টাকা। মঙ্গলবার ‘নবম পার্লামেন্ট ওয়াচ’ প্রতিবদেনে এই রিপোর্ট প্রকাশ করে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-টিআইবি। আর টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেছেন ওই সংসদে মাত্র ৩/৪ মিনিট সময়ের মধ্যে ২০ শতাংশ বিল পাশ হয়েছে। সাবেক তত্বাবধায়ক সরকারে উপদেষ্টা এম হাফিজউদ্দিন খান মনে করেন, এর ফলে দেশের সাধারণ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। সংসদ সদস্যদের নিয়ম নীতির মধ্যে আনতে হবে।
parliament 2.jpg

টিআইবি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, সংসদ সদস্যরা নির্ধারিত সময়ের পরে সংসদের উপস্থিত না হওয়ায় কোরাম সংকট হয়েছে ১৯টি অধিবেশনে ২২২ ঘণ্টা ৩৬ মিনিট। যা প্রতি কার্যদিবসে গড়ে ৩২ মিনিট। সংসদ পরিচালনা করতে প্রতি মিনিটে গড়ে ৭৮ হাজার টাকা খরচ হওয়ার কারণে এই ২২২ ঘন্টায় মোট অপচয় হয় ১০৪ কোটি ১৮ লাখ টাকা।
সংসদ সদস্য হিসেবে একজন এমপি মাসিক ভিত্তিতে সম্মানী বাবদ ২৭ হাজার, আপ্যায়ন ৩ হাজার, এলাকা ভাতা ৭ হাজার ৫০০, গাড়ি বাবদ ৪০ হাজার টাকাসহ নানান ভাতা মিলে প্রায় এক লাখ টাকার বেশি সুবিধা ভোগ করেন।এ হিসাবে তারা এক কার্যদিবসের জন্য ৩ হাজার ৫৫৮ টাকা ভোগ করেন। কিন্তু নবম সংসদে সরকার দলীয় ৬০ শতাংশ সংসদ সদস্য সংসদে দুই তৃতীয়াংশ কার্যদিবস উপস্থিত না থেকেই সম্পূর্ণ গ্রহণ করেছেন।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, নবম সংসদে আইন প্রণয়নে মোট সময়ের মাত্র ৮ ভাগ সময় ব্যয় করা হয়েছে। বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ আইন মাত্র ৩ থেকে ৪ মিনিটের আলোচনায় পাস হয়েছে।
টিআইবি’র ট্রাস্টি এবং সাবেক তত্বাবধায়ক সরকারে উপদেষ্টা এম হাফিজউদ্দিন খান প্রোব নিউজকে বলেন‘, জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে সংসদ সদস্যরা দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিচ্ছেন না। তাদের উচিত ঠিকমত দায়িত্ব পালন করা। আর তারা ঠিকমত দায়িত্ব পালন না করায় দেশের সাধারণ মানুষের অর্থের অপচয় হচ্ছে।’ তিনি বলেন,‘ আরো লক্ষ্যনীয় যে সংসদ সদস্যদের যে মূল কাজ সেই আইন প্রণয়নে তারা সময় দিচ্ছেন না। কয়েক মিনিটেই আইন পাশ হয়। যা একই সঙ্গে স্বচ্ছতা প্রশ্নবিদ্ধ করে এবং সংসদ সদস্যরা তাদের পদের প্রতি অবিচার করেন।’
হাফিজউদ্দিন খান বলেন,‘ দলের পক্ষ থেকে তাদের দায়িত্বশীল হওয়ার জন্য চাপ দেয়া উচিত। আর প্রয়োজনে আইনও করা যায়।’
আর আর টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান প্রোব নিউজকে বলেন,‘ এক জরিপে দেখা গেছে ৯ম জাতীয় সংদসে পাশ হওয়া বিলের ২০ শতাংশ ৩ থেকে ৪ মিনিট সময়ের মধ্যে পাশ হয়েছে- যা দু:খজনক। তেমন কোন আলোচনা না করেই তড়িঘড়ি করে আইন পাশের এই সংস্কৃতি গ্রহণযোগ্য নয়। এতে স্বাভাবিক কারণেই মানুষের মনে আইন নিয়ে প্রশ্ন জাগে।’ কোরম সঙ্কট এবং সংসদে অনুপস্থিতির ব্যাপারে তিনি বলেন,‘ সংসদ সদস্যদের দায়িত্বশীল করতে সবচেয়ে বড় ভূমকিা রাখতে পারেন স্পিকার। তিনি যদি উদ্যোগী হন তাহলে এই অবহেলার সংস্কৃতি অনেকটাই দূর করা সম্ভব।
অন্য এক প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন.‘ বর্তমান সংসদ প্রতিনিধিত্বশীল সংসদ নয়। এখানে বিরোধী দল সরকারেও আছ। যা খুবই অদ্ভূত। তাই সবার অংশগ্রহণে একটি নির্বাচনের মাধ্যমে প্রতিনিত্বিশীল সংসদ গঠন করা উচিত।
প্রোব/ জাতীয়/হার/২০১৪

 

১৮ মার্চ ২০১৪ | জাতীয় | ১৬:২৭:৩৩ | ১২:০৬:২৫

জাতীয়

 >  Last ›