A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের শিকার হয়েছে মালয়েশিয়ার বিমান? তল্লাশি এলাকা ভারত মহাসাগরে বিস্তৃত | Probe News

malaysia5-1.JPG

প্রোব নিউজ, ডেস্ক: মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমান সম্পর্কে নতুন তথ্য দিলো মার্কিন তদন্ত দল। তাদের দাবি, ইচ্ছা করেই বন্ধ করে দেয়া হয়েছিলো বিমানটির যোগাযোগ ব্যবস্থা। তাহলে কি বিমানটি সত্যি সত্যি সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের শিকার হয়েছে? এপ্রশ্নই এখন ঘণীভূত হচ্ছে বোয়িং৭৭৭-২০০ইআর বিমানটিকে ঘিরে।
মার্কিন তদন্ত দলের বরাত দিয়ে এবিসি নিউজ জানায়, বিমানটির তথ্য প্রেরণ ব্যবস্থা বা ডাটা রিপোর্টিং সিসটেম এবং ট্রান্সপন্ডার যা ভূমিতে থাকা রাডারের কাছে বিমানটির অবস্থান সম্পর্কে তথ্য পাঠায় তা এক এক করে বন্ধ করে দেয়া হয়েছিলো। একটিকে বন্ধ করার ঠিক ১৪ মিনিট পর আরেকটি বন্ধ করা হয়েছিলো। মার্কিন তদন্ত দল জানায়, এর থেকে বোঝা যায় যে, হয় যোগাযোগ ব্যবস্থা ইচ্ছা করেই বন্ধ করে দেয়া হয়েছিলো অথবা বিমানটি আকস্মিক কোন ভয়াবহ দুর্ঘটনার শিকার হয়েছিলো।
malaysia2.jpgওয়াশিংটন পোষ্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, বিমানটির ককপিটের সঙ্গে শেষ কথপোকথনের প্রায় ৩০ মিনিট পর ট্রান্সপন্ডারটি বন্ধ হয়ে যায়। আর ঠিক সে মুহুর্তেই বিমানটি তার গতিপথ পরিবর্তন করেছিলো। সব বিষয় মিলিয়ে একটি উপসংহারে আসা যায়। আর তা হলো পাইলট নিজে অথবা অনাকাঙ্খিত কেউ বিমানটির নিয়ন্ত্রণ নিয়েছিলো।
মালয়েশিয়ার বিমান কর্তৃপক্ষ জানায়, এপর্যন্ত পাওয়া তথ্য থেকে দেখা যায়, রিপোর্টিং সিস্টেম বন্ধ হয় ভোর ১.০৭ মিনিটে আর ট্রান্সপন্ডার বন্ধ হয় ১.২১ মিনিটে। বিমানটি রাডারের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পরে ভোর ১.৩০ মিনিটে। আর বিমানটি থেকে সর্বশেষ বার্তা ‘ঠিক আছে, শুভরাত্রি’ পাঠানো হয়েছিলো ভোর ১.০৭ মিনিটেই। সেসময় বিমানটি মালয়েশিয়ার আকাশ সীমা থেকে ভিযেতনামের আকাশসীমায় প্রবেশ করছিলো।
malaysia4.jpgএদিকে নিখোঁজ বিমানটির সন্ধানে তল্লাশি অভিযান ভারত মহাসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান হোয়াইট হাউসের প্রেস সচিব। বিমানটির খোঁজে ক্ষেপনাস্ত্র বিধ্বোংসী মার্কিন জাহাজ ইউএসএস কিড-কে ভারত মহাসাগরে পাঠানোর কথা রয়েছে। তবে ভারত মহাসাগরের দিকে ওই জাহাজটি যাত্রা করেছে কিনা সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।
ভারত মহাসাগরে মালয়েশিয়ার বিমানটি বিধ্বস্ত হতে পারে- পেন্টাগনের এমন ইঙ্গিতের পরই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হলো। ভারত মহাসাগরে তল্লাশি অভিযানের কথা নিশ্চিত করেছেন হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জে কার্নি।
মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানটির সঙ্গে আসলেই কি হয়েছে এমন প্রশ্ন যখন ঘুরপাক খাচ্ছে তখন নতুন এক আশংকার কথা জানিয়েছে চীন। সম্প্রতি চীনের কুনমিংয়ের রেল স্টেশনে হামলা চালানো সন্ত্রাসী সংগঠন উইঘুর বিমান ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে বলে আশংকা করছেন তারা।
malaysia1.jpgএই আশংকা সত্য হলে চীনের বিরুদ্ধে এটাই হবে সংগঠনটির সবচে বড় হামলা। বিমানটিতে থাকা যাত্রীদের দুই তৃতীয়াংশই চীনের নাগরিক। যদিও এখনো পর্যন্ত এটা নিশ্চিত নয় যে, বিমানটি সন্ত্রাসী কার্যক্রম নাকি দুর্ঘটনার শিকার। এরআগে ভূয়া পাসপোর্ট নিয়ে বিমানে আরোহী দুই ইরানের নাগরিককে ঘিরে সন্দেহ দানা বাঁধলেও পরে তারা কোন সন্ত্রাসী সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত নয় জানিয়ে তা নাকোচ করে দেয় ইন্টারপোল ও মালয়েশিয় সরকার।
গেলো শনিবার ২৩৯ জন যাত্রী ও ১২ জন ক্রু নিয়ে নিখোঁজ হয় মালয়েশিয়ার বোয়িং ৭৭৭-২০০ইআর নামে বিমানটি।
প্রোব নিউজ/মম/আন্তর্জাতিক/১৪.০৩.২০১৪

১৪ মার্চ ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ১৩:১২:১০ | ১৩:৫৪:৫৫

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›