A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমান নিয়ে নতুন তথ্য; মেলেনি | Probe News

malaysia 1.jpgপ্রোব নিউজ, ডেস্ক: নিখোঁজ হওয়ার চার দিন পর মালয়েশিয়ার বিমান সম্পর্কে নতুন তথ্য দিলো দেশটির সামরিক বাহনী। নিখোঁজ হওয়ার আগে বিমানটিকে সর্বশেষ মালাক্কা প্রণালীর কাছে দেখা গেছে বলে দাবি করেছে মালয়েশিয় সেনাবাহিনী। এরআগে ৩৫ হাজার ফুট উপরে প্রায় একঘণ্টা বিমানটি উড়েছে। পরে যাত্রাপথ পরিবর্তন করে বিমানটি পশ্চিম দিকে মালাক্কা প্রণালীর দিকে যাচ্ছিল।
এরআগে বিমানটি সর্বশেষ মালয়েশিয়ার পূর্ব উপকূলে বেসামরিক বিমান পরিবহন বিভাগের কন্ট্রোল রুমের সঙ্গে যোগাযোগ করে বলে জানানো হয়েছিলো। এদিকে বিমানটির খোঁজ পেতে চতুর্থদিনের মতো চলছে অনুসন্ধান।
সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, এমএইচ ৩৭০ ফ্লাইটের বিমানটি কুয়ালালামপুর থেকে ছেড়ে বেইজিংয়ের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিল। কোটা ভারু শহর ও ভিয়েতনামের দক্ষিণাঞ্চলে পৌছানোর পর অপেক্ষাকৃত কম উচ্চতায় এসে পথ পরিবর্তন করে বিমানটি। মালয়েশিয়ার পশ্চিম উপকূলে মালাক্কা প্রণালী বিশ্বের সবচে ব্যস্ততম শিপিং চ্যানেলগুলোর মধ্যে একটি।
এরআগে মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার বেরিটা হারিয়ান সংবাদপত্রে দেশটির সামরিক বাহিনীর বরাত দিয়ে জানানো হয়, শনিবার স্থানীয় সময় ভোর ২টা ৪০ মিনিটে মালাক্কা প্রণালীর উত্তরাংশে পুলাই পেরেক দ্বীপের কাছে সর্বশেষ রাডারে ধরা পড়ে বিমানটি। তবে এর পর বিমানটির কি হয় সেসম্পর্কে কিছু জানানো হয়নি। এদিকে সামরিক বাহিনীর এই দাবিকে বেসামরিক বিমান পরিবহন কর্তৃপক্ষ ও তল্লাসিম অভিযানে অংশ নেয়া দলগুলো যাচাই করা হবে বলে জানানো হয়।
এদিকে চুরি হওয়া পাসপোর্টে ভ্রমণকারী দুইজনের পরিচয় পাওয়া গেছে বলে নিশ্চিত করেছে Malaysia.jpgইন্টারপোল। পুলিশ প্রধান খালিদ জানান, এদের মধ্যে একজন ইরানের নাগরিক। ১৯ বছর বয়সী ওই যুবকের নাম পোউরিয়া নুর মোহাম্মদ মেহেরদাদ। সে অবৈধ অভিবাসী হলেও তার সঙ্গে কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত থাকার প্রমাণ মেলেনি। ফ্র্যাঙ্কফুটে তার মা তার জন্য অপেক্ষা করছে বলেও জানানো হয়। অন্যজনের নাম পরিচয় জানতে এখনো অনুসন্ধান চলছে। গেলো ২৮শে ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ বিমানটি নিখোঁজ হওয়ার আট দিন আগে থাইল্যান্ডের ফুকেট থেকে মালয়েশিয়ায় প্রবেশ করে ওই দুইজন।
এদিকে ইলেকট্রনিক ওয়ারফেয়ার প্রযুক্তি ব্যবহার করে উড়োজাহাজকে পুরোপুরি গায়েব করে দিতে সক্ষম এমন প্রযুক্তি নিয়ে সরাসরি কাজ করছেন এমন ২০ জন যাত্রী বিমানটিতে ছিলেন বলে জানা গেছে। ‘ফ্রিস্কেল সেমিকন্ডাক্টর’ নামক উচ্চতর প্রযুক্তি বিষয়ক একটি কোম্পানির ওই ২০ কর্মকর্তা কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিং যাচ্ছিলেন। অস্টিন (টেক্সাস) ভিত্তিক ফ্রিস্কেল সেমিকন্ডাক্টর কোম্পানিও তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা বিবৃতিতে এতথ্য নিশ্চিত করেছে।
প্রোব নিউজ/মম/আন্তর্জাতিক/১১.০৩.২০১৪

 

১১ মার্চ ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ১৯:১০:০৬ | ২০:০৩:০৮

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›