A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্য সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ট করতে উদ্যোগী ঢাকা | Probe News

India-Bangladesh.jpgপ্রোবনিউজ, ডেস্ক: ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য-সম্পর্ক আরও নিবিড় করতে বাংলাদেশের উদ্যোগ নিয়ে একটি খবর প্রকাশ করেছে কলকাতাভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার। সোমবার এ নিয়ে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, বাণিজ্য বাড়াতে দু’দেশের মধ্যে আমদানি-রফতানি বৃদ্ধির বিভিন্ন পথ চিহ্নিত করা হচ্ছে। পাশাপাশি উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলির সঙ্গে যোগাযোগের রাস্তাও উন্নত করার চেষ্টা চলছে।
বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের বরাতে আনন্দবাজার জানায়, দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে সড়ক ও নৌপথে আমদানি-রফতানি কী ভাবে বাড়ানো যায়, সম্প্রতি তার উপায় চিহ্নিত করা হয়েছে। এ নিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের নেতৃত্বে এক আন্তঃমন্ত্রক বৈঠকে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
আনন্দবাজার জানায়, ওই বৈঠকে দু’দেশের সীমান্তে স্থল বন্দরগুলিতে কাস্টমস (শুল্ক) অফিস তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কথা হয়েছে বাংলাবান্দা, ফুলবাড়ি, বুড়িমারী ও নাকুগাঁ স্থল বন্দরের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ উন্নত করার। একই সঙ্গে, আখাউড়া-আগরতলা রেল সংযোগ এবং গুয়াহাটি-বাংলাদেশ উড়ান চালুর কথাও আলোচিত হয়েছে ওই বৈঠকে। সিদ্ধান্ত হয়েছে এই সমস্ত প্রকল্পে পা বাড়ানোর।
India-Bangladesh2.jpgসংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাতে আনন্দবাজার আরও জানায়, বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বাংলাদেশ-ভারত-মায়ানমার--চিনের মধ্যে সড়ক যোগাযোগের জন্য যে আঞ্চলিক জোট গড়া হয়েছে, তার মাধ্যমেই বাণিজ্য সম্প্রসারণের জন্য পদক্ষেপ করবে ঢাকা। সেই হিসেবে ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলির সঙ্গে যোগাযোগের যে বেহাল দশা রয়েছে, তা দ্রুত শোধরাতে চায় বাংলাদেশ। উল্লেখ্য, বাণিজ্য ও অর্থমন্ত্রী ছাড়াও ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বিদেশমন্ত্রী মাহমুদ আলি, যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, রেলমন্ত্রী মজিবুল হক, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা গওহর রিজভি, ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার আহমেদ তারেক করিম প্রমুখ।
তোফায়েল আহমেদের বরাতে আনন্দবাজার জানায়; ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে দু’দেশের
মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ বাড়ানোর উপরই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে বৈঠকে। তা ছাড়া, শুধু ভারত নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে মুক্ত-বাণিজ্য চুক্তি করেও বাংলাদেশের রফতানি বাজার সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ট্রানজিট রুট না-পাওয়ার ফলে, ভারত যে তার উত্তর-পূর্বের সাত রাজ্যে পণ্য পরিবহণের জন্য মায়ানমারের সঙ্গে কালানদী ট্রানজিট রুট তৈরি করেছে, সে বিষয়টিও বৈঠকে তুলে ধরা হয়েছে। বাণিজ্যমন্ত্রীর মতে, করিডোর হোক বা ট্রানজিট, এ বিষয়ে বাংলাদেশকে স্থির সিদ্ধান্তে আসতে হবে।

প্রোব/বান/জাতীয়/ ১০.০৩.২০১৪

১০ মার্চ ২০১৪ | দক্ষিণ এশিয়া | ১০:৪১:২২ | ২৩:২৮:০৪

দক্ষিণ এশিয়া

 >  Last ›