A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

অস্ত্রে সয়ংসম্পূর্ণ হতে চায় ভারত | Probe News

প্রোব নিউজ, ডেস্ক: বিশ্বের সবচে বড় অস্ত্র আমদানিকারক দেশ ভারতে অস্ত্র রপ্তানির সুযোগ পেতে বৃহস্পতিবার এক প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে অংশ নেয় ৩০টি দেশ। শেষমেষ ভারতে অস্ত্র রপ্তানির সুযোগ পায় রাশিয়া। তবে খুব শিগগিরই ভারত বাইরের দেশ থেকে অস্ত্র আমদানি না করে নিজের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার জন্য অভ্যন্তরীণভাবেই অস্ত্র উৎপাদন করবে বলে জানান দিয়েছে দেশটি।
এরইমধ্যে নিজেরাই যুদ্ধ বিমান, ট্যাংক এবং একটি যুদ্ধ জাহাজ তৈরি করেছে ভারত। এদিকে ভারতের এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হলে রাশিয়া অনেকটাই সংকটে পড়বে বলে মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। কারণ ভারতে ৩৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের অস্ত্রের বাজার রয়েছে রাশিয়ার। যা রাশিয়ার অস্ত্র রপ্তানি শিল্পের এক তৃতীয়াংশের সমান।
ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ কে এ্যন্টনী এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, প্রতিরক্ষার জন্য বাইরের অস্ত্রের উপর নির্ভরশীলতা অবশ্যই শেষ হবে। কারণ ভারতের মতো একটি দেশকে প্রতিরক্ষার জন্য অন্য দেশের উপর নির্ভর করতে হয় এটা মোটেও আনন্দের কিছু নয়।
তবে ভারত অস্ত্রের জন্য অন্য দেশের উপর নির্ভরশীলতা কমাতে পারবে কিনা তা নিয়ে সন্দিহান অনেক অস্ত্র বিশ্লেষকই। কারণ অভ্যন্তরীণভাবে কয়েক দশক ধরে অস্ত্র উৎপাদনের চেষ্টার পরও এবছর অস্ত্র আমদানিতে ১১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় করবে ভারত।
সুইডেনের স্টকহোমে ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের গবেষক পিটার ডি. ওয়েজম্যান বলেন, আমার জানা মতে ভারতের মতো বিশ্বের আর কোন দেশ বার বার চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ার পরও অস্ত্র উৎপাদনের জন্য এতো ব্যয় করেনি। ভারতের উৎপাদিত অস্ত্র দেশটির নির্ভরশীলতা কমাতে পারবে না মন্তব্য করে তিনি বলেন, ভারতে উৎপাদিত যুদ্ধ বিমান, ট্যাংক আর যুদ্ধ জাহাজ গুনগত মান সম্পন্ন নয়।
সামরিক খাতে ব্যয়ের দিকে থেকে বিশ্বের দশটি দেশের মধ্যে ভারতের অবস্থান অষ্টম। আর দশটি দেশের মধ্যে শুধু সৌদি আরব অভ্যন্তরীণভাবে অস্ত্র উৎপাদন করে থাকে। তবে বিপরীতভাবে চীনের তৈরি অস্ত্র মানসম্পন্ন হওয়ায় সম্প্রতি অস্ত্র রপ্তানি শুরু করেছে দেশটি।
অস্ত্র উৎপাদনের ক্ষেত্রে ভারতের বড় সমস্যা হচ্ছে দুর্নীতি আর অস্থিতিশীল সরকার ব্যবস্থা। আর এ সংকট কাটিয়ে উঠতে বেসরকারিভাবে অস্ত্র উৎপাদনকে উৎসাহিত করা হচ্ছে। এছাড়া সরকারি ও বেসরকারি যৌথ মালিকানায়ও অস্ত্র তৈরির কাজ হাতে নেয়া হয়েছে। তবে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সরকারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করতে ইচ্ছুক হয়না। আর বিদেশি কোম্পানীগুলোকে ২৬ শতাংশের বেশি মালিকানা দিতে চায় না সরকার। এছাড়া অনুন্নত অবকাঠামো, শ্রমিক শোষণসহ অন্যান্য কারনে অস্ত্র উৎপাদনে পিছিয়ে পড়ে ভারত। যা রাশিয়ার জন্য সুফল বয়ে আনে।
প্রোব নিউজ/মম/আন্তর্জাতিক/০৭.০৩.২০১৪

৭ মার্চ ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ১৯:৫৭:১২ | ১০:৫৭:১৮

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›