A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

সরকার দরিদ্র মানুষের অধিকার কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করছে | Probe News

সোশ্যাল বিজনেস ডে উপলক্ষে ড. ইউনূস
সরকার দরিদ্র মানুষের অধিকার কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করছে

 

mohammed-yunusপ্রোবনিউজ ডটকম, ঢাকা : গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা নোবেল বিজয়ী অর্নীতিবিদ মুহম্মদ ইউনূস বলেছেন, গরিব মানুষের জন্যই গ্রামীণ ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। সরকার এই ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা দরিদ্র মানুষের অধিকার কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করছে। গ্রামীণ ব্যাংকের অধিকার আদায়ের লড়াই চালিয়ে যাওয়া হবে।

শনিবার ‘সোশ্যাল বিজনেস ডে’ উপলক্ষে রাজধানীর রেডিসন হোটেলে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের এক পর্ায়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে তিনি এ কথা বলেন।

ড. ইউনূস বলেন, সরকার গ্রামীণ ব্যাংকের জন্য নতুন আইন করছে। এ আইন পাস হলে বেশিরভাগ শেয়ার সরকারের হাতে চলে যাবে। এর ফলে গ্রামীণ ব্যাংকে সরকারের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হবে।

এর আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত ড্যান ডাব্লিউ মজীনাসহ বেশ কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রদূত বক্তব্য রাখেন। এবারের সোশ্যাল বিজনেস ডে’র মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেন্টার ফর জাস্টিস এন্ড হিউম্যান রাইটসের প্রেসিডেন্ট কেরি কেনেডি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেন, বেকারত্ব সব জায়গায় রয়েছে। কিন্তু একজন মানুষও বেকার থাকবে না। এটাই আমাদের চ্যালেঞ্জ। আর এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কাজ করছে সোশ্যাল বিজনেস।

অর্থনীতি আমাদের সঙ্গে যে ব্যবহার করছে তাতে আমরা হতাশ। তরুণরা আরো বেশি হতাশ। এই হতাশা থেকেই আমরা সোশ্যাল বিজনেসের উদ্যোগ নেই।

তিনি বলেন, পুরো শিক্ষা ব্যবস্থাই ভুল। আমরা চাকরিপ্রার্থী হিসেবে শিক্ষার্থীদের তৈরি করছি। মানবিক গুণাবলীর অধিকারী হিসেবে এটি লজ্জার।

পঞ্চমবারের মতো পালিত হওয়া সোশ্যাল বিজনেস ডে’র অনুষ্ঠানটি বিশ্বের ৮৯টি দেশ সরাসরি দেখছে। অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে ইউনূস সেন্টার। ‘আমরা চাকরি প্রার্থী নই, চাকরি দাতা’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে এবারের দিবসটি পালিত হচ্ছে।

সোশ্যাল বিজনেস ডে’তে অংশ নিতে ঢাকায় এসেছেন সেন্টার ফর জাস্টিস এন্ড হিউম্যান রাইটসের প্রেসিডেন্ট কেরি কেনেডি। অনুষ্ঠানের মূল প্রবন্ধকারও তিনিই।

কেরি কেনেডি ছাড়াও গ্রামীণ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ও সিইও এন্ড্রিয়া জাং, যুক্তরাষ্ট্রের স্টোনিফিল্ড ফার্মসের সিইও গ্যারি হার্শবার্গ, চীন থেকে ৪৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল, ফ্রান্স থেকে ৩২ সদস্য, জাপানের ২৬ সদস্য, ভারতের ২৩ সদস্য, তাইওয়ান থেকে ৩৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল, যুক্তরাষ্ট্র থেকে ১৭ জন, হংকং থেকে ১৩ সদস্য, কম্বোডিয়া ১০, কাজাখস্তানের ৯ জন, মেক্সিকো থেকে ৯ জন, মালয়েশিয়া থেকে ৯ জন, সুইডেন থেকে ৯ জন, ইতালি, বাহরাইন, সেনেগাল, কলম্বিয়া, ভিয়েতনাম এবং গ্রামীণ ক্রেডিট এগ্রিকোল সংস্থা থেকে ১৫ সদস্যের প্রতিনিধি দল বিজনেস ডে’র কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন।

দিনব্যাপী এ কর্মসূচিতে ৩১টি দেশের ২৭৫ জন অংশগ্রহণকারী যোগ দিয়েছেন। দেশি-বিদেশি মিলিয়ে অংশ নিয়েছেন এক হাজার জনের বেশি।


প্রোব/পি/জাতীয়/২৮.০৬.২০১৪

 

২৮ জুন ২০১৪ | জাতীয় | ১৪:৩২:২৩ | ১৪:১৬:০৪

জাতীয়

 >  Last ›