A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

এখনি অভিযান নয়- পুতিন | Probe News

প্রোব নিউজ, ডেস্ক: ইউক্রেনের ক্রিমিয়া অঞ্চলে আপাতত সামরিক শক্তি ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। শেষ অস্ত্র হিসাবেই কেবল রাশিয়া এ ব্যবস্থা নিতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।।
মঙ্গলবার মস্কোয় রাষ্ট্রীয় বাসভবনের বাইরে এক সংবাদ সম্মেলনে পুতিন বলেন, রাশিয়ার ওপর পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞা আরোপের চিন্তাভাবনা উল্টো ফল বয়ে আনবে। সেসময় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভিক্টর ইয়ানুকোভিচের ক্ষমতাচ্যুতিকে ‘সংবিধানবিরোধী ক্যু’ বলেও আখ্যা দেন পুতিন। রাশিয়ার মিত্র ইয়ানুকোভিচ ক্ষমতা হারালেও তাকে এখনো দেশটির বৈধ নেতা বলে পুতিন দাবি করেন।
এর আগে মঙ্গলবারেই রাশিয়ার পশ্চিমাঞ্চলে ইউক্রেইন সীমান্তের কাছে সামরিক মহড়ার অবসান ঘটিয়ে সেনাদের ঘাঁটিতে ফেরার নির্দেশ দেন পুতিন।
গত সপ্তাহে পুতিন রুশদের স্বার্থ রক্ষায় ইউক্রেইনে আগ্রাসন চালানোর অধিকার ঘোষণা করেছিলেন। কিন্তু রাশিয়ার মধ্য ও পশ্চিমাঞ্চলে শুরু হওয়া সামরিক মহড়া থেকে পূর্ব-ইউক্রেইনের রুশভাষী অঞ্চলে রাশিয়ার সেনা পাঠানোর আশঙ্কা বেড়েছিল।
এদিকে রাশিয়ার বার্তা সংস্থাগুলো ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছে, রাশিয়ান ফেডারেশনের সশস্ত্র বাহিনীর সুপ্রিম কমান্ডার ভøাদিমির পুতিন সামরিক মহড়ায় অংশ নেয়া সেনা ও ইউনিটের সদস্যদেরকে তাদের ঘাঁটিতে ফেরার নির্দেশ দিয়েছেন। পুতিনের এ নির্দেশে ইউক্রেইনে রাশিয়ার আসন্ন হামলার আশঙ্কা কমলেও ক্রিমিয়ায় রুশ ও ইউক্রেইনের সেনাদের মধ্যে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।
ক্রিমিয়া উপদ্বীপে ইউক্রেইনের প্রধান সামরিক ঘাঁটিগুলো ঘিরে রেখেছে রাশিয়ার সেনারা। ক্রিমিয়ায় প্রবেশ করছে হাজার হাজার রুশ সেনা। তবে ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্টের অনুরোধেই ইউক্রেইনে সেনা পাঠানো হয়েছে বলে দাবি করেছে।
গতমাসের শেষদিকে ইউক্রেইনে পশ্চিমাপন্থি আন্দোলনকারীদের প্রবল বিক্ষোভ ও সংঘর্ষে জের ধওে ইয়ানুকোভিচ সরকারের পতন হয়। এরপর ক্ষমতায় আসা অন্তর্বর্তী সরকারের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রসহ গোটা পশ্চিমা বিশ্ব।
প্রোব নিউজ/মম/আন্তর্জাতিক/০৪.০৩.২০১৪

৪ মার্চ ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ২১:১৭:২৫ | ১৪:২৯:২৪

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›