A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

ইকুয়েডরের বিপক্ষে সুইজারল্যান্ডের শ্বাসরোধ্য জয় | Probe News

ইকুয়েডরের বিপক্ষে সুইজারল্যান্ডের শ্বাসরোধ্য জয়

423993_heroa.jpgপ্রোবনিউজ, ডেস্ক : সুইস ফরোয়ার্ড শক্তিশালী আক্রমণ চালিয়েও ইকুয়েডরের বিপক্ষে সহজ জয় তুলে নিতে পারেনি রিকার্ডো রদ্রিগেজের দল। বরং সমতায় ফিরতে কঠিন লড়াই করতে হয়েছে। শ্বাসরোধ্যকর আক্রমণ প্রতিহতও করতে হয়েছে সুইসদের রক্ষণভাগকে। ইনজুরি সময়ে হ্যারিস সেফারোভিচের নাটকীয় গোলের সুবাধে ২-১ ব্যবধানে শ্বাসরোধ্য জয় পেয়েছে সুইজারল্যান্ড।
বিশ্বকাপের ‘ই’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ঠিকই জিতেছে সুইজারল্যান্ড। তারা ১-২ গোলের ব্যাবধানে হারিয়েছে ইকুয়েডরকে। ম্যাচের প্রথমার্ধে গোল করে এগিয়ে ছিলো ইকুয়েডর। দ্বিতীয়ার্ধের শেষ মিনিটের গোলে জয় পেল সুইজারল্যান্ড। সুইসদের জ্যোতিষী গিনিপিগ ‘মাদামে শিভা’র ভবিষ্যদ্বাণী ঠিকই ফলে গেল। মাদামে শিভার ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন ‘ই’ গ্রুপের প্রথম এ ম্যাচে জিতবে সুইজারল্যান্ড। শেষমেশ হলোও তাই!
রোববার রাতে ব্রাজিলিয়ার স্তাদিও নাসিওনালে শুরু থেকেই প্রতিশ্রুত আক্রমণাত্মক খেলা শুরু করে সুইসরা। বল দখলেও প্রতিপক্ষের চেয়ে এগিয়ে ছিল তারা। কিন্তু প্রথমার্ধের ২২ মিনিটে সাফল্য লুফে নেয় ইকুয়েডর। আয়ুভির করা ফ্রি কিক থেকে বল পেয়ে হেড করে গোল করেন ভ্যালেনসিয়া। গোল করার আগ মুহূর্তে ভ্যালেনসিয়ার পাহাড়ায় কেউই ছিলো না।
গোল খেয়ে চুপসে না গিয়ে একের পর আক্রমণ করতে থাকে সুইজারল্যান্ড। কিন্তু ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় গোল আর পাচ্ছিলো না তারা। প্রথম গোল পেতে সুইসদের অপেক্ষা করতে হয়েছে ৪৮ মিনিট পর্যন্ত। রিকার্ডো রদ্রিগুয়েজের উড়িয়ে মারা বলে হেড করে গোল করেন আদমির মাহামেদি। তার গোলই সমতা ফেরায় সুইজারল্যান্ড। এরপর ম্যাচ এগুতে থাকে ড্রর দিকে। দুই দলের সমানতালের লড়াই চলতে থাকলেও গোলর দেখা পাচ্ছিলো না কোনো দল। শেষ পর্যন্ত ম্যাচের ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে গিয়ে গোল পান সুইস তারকা হ্যারিস সেফারোভিচ। এবারো গোলের উৎস ছিলেন রিকার্ডো রদ্রিগুয়েজ। এই গোলটিই সুইসদের জয় নিশ্চিত করে। ‘ই’ গ্রুপে সুইজারল্যান্ড-ইকুয়েডরের অন্য দুই প্রতিপক্ষ ফ্রান্স ও হন্ডুরাস।
প্রোব/এহ/খেলা ১৬.০৬.২০১৪

১৬ জুন ২০১৪ | খেলা | ১১:০০:১৮ | ১১:০৮:৪৬