A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

ক্ষুদে বসনিয়ার বিপক্ষে মেসির আর্জেন্টিনা | Probe News

ক্ষুদে বসনিয়ার বিপক্ষে মেসির আর্জেন্টিনা

Argentina Vs Bosniya.jpgপ্রোবনিউজ, ঢাকা : বিশ্বকাপে প্রথমবারের মত খেলছে ইউরোপের হার্জেগোবেনিয়া-বর্সনিয়া। তাও আবার পৃথিবীর অন্যতম ফুটবল ঐতিহ্যবাহী দেশ আর্জেন্টিনার বিপক্ষে। ম্যাচে জেকোরা ফুটবল জাদুর কিছুটা হলেও উপভোগ করতে পারবে মেসি, হিগুয়েন, অ্যাগুয়েরো ও ডি মারিয়ার পাস আর আক্রমণে। ‘এফ’ গ্রুপে মেসি ও তার আর্জেন্টিনার ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপ শুরু হয়ে যাচ্ছে ক্ষুদে বসনিয়ার বিপক্ষে লড়াই দিয়ে। ফুটবলের স্বপ্নের সব রেকর্ড অবলিলায় ভেঙেচুড়ে এগিয়ে যাওয়া মেসির বিশ্বকাপ জাদু দেখার অপেক্ষায় ফুটবলবিশ্ব। রোববার বাংলাদেশ সময় ভোর ৪ টায় রিও ডি জেনিরোর মারাকানা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বের অন্যতম সেরা মেসি ও দু’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার নতুন স্বপ্ন সন্ধানের অভিযাত্রা।
২০০৬ বিশ্বকাপে ১৮ বছর বয়স, সুযোগও ছিল কম। কিন্তু ২০১০ বিশ্বকাপে পরিণত হয়েও সাফল্য পাননি মেসি। গোলমেশিন হয়েও গোলের দেখা পাননি। ফুটবল জাদুতে মন্ত্রমুগ্ধ করতে পারেননি ফুটবল অনুরাগীদের। এরপরও ব্যক্তি নৈপুণ্যে একের পর এক কীর্তি গড়েছেন। সেই পথে আর্জেন্টিনার নেতৃত্বও এখন তার। ২৬ বছরে এসে মেসির ওপর এখন ‘আর্জেন্টিনার মেসি’ হওয়ার দায়। ফুটবলের সবচেয়ে বড় আসরে মেসির ওপর আর্জেন্টিনার স্বপ্ন পূরণের দায়। তৃতীয়বারের মতো বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আর্জেন্টাইন মিশনের কাণ্ডারি যে তিনিই। শেষ বিশ্বকাপে তার ওপর কোচ দিয়েগো ম্যারাডোনা একটু বেশি চাপ দিয়ে ফেলেছিলেন। বর্তমান কোচ সাবেলা তা করেননি। এখন তিনজনের আক্রমণভাগে মেসি সঙ্গে পান হিগুয়াইন ও আগুয়েরোকে। চাপের সবটা যেন মেসিকে একাই না বইতে হয় তা নিশ্চিত করতে মাঝমাঠ থেকে ফরোয়ার্ড লাইনে উঠে আসেন ডি মারিয়াও। প্রতিপক্ষ ডিফেন্সের মনযোগে ধরান চিড়। ফ্যাবুলাস ফোরের আগ্রাসী আক্রমণ এভাবেই উঠেছে জেগে।

সবকিছুই করা হয় মেসির জন্য। তারপরও আর্জেন্টিনাকে কেউ একজনের দল হিসেবে ভাবতে বসলে তার বিরোধিতা করবেন মেসি নিজে, ‘আমার মনে হয় না আর্জেন্টিনা দল শুধু আমার ওপর নির্ভর করে। আমাদের দারুণ খেলোয়াড়ের একটি গ্র“প আছে। সবাই মিলে সেরাটা দিয়ে শিরোপা তুলে আনাই প্রথম লক্ষ্য।’ নাপোলি স্ট্রাইকার হিগুয়াইন গোড়ালির ইনজুরির কারণে এই ম্যাচে কিছুটা অনিশ্চিত। কিন্তু এ মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম সেরা আক্রমণভাগ আর্জেন্টিনার। ইজেকুয়েল লাভেজ্জি নিতে পারবেন সামনের জায়গা। কিন্তু কথা হয় আর্জেন্টিনার ডিফেন্স নিয়ে। বলা হয়, ওটাই ডোবায় এবং ডুবাতে পারে। কিন্তু ডিফেন্ডার গ্যারে যেমন মানেন না তা। তেমনই মিডফিল্ডার ফার্নান্দো গ্যাগো বলেন, ১১ জন মিলে আক্রমণে যাওয়ার মতো ১১ জন মিলে ঘর সামলানোর কথা।

প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে খেলতে আসা বসনিয়া হার্জেগোভেনিয়া কিন্তু ঘর সামলানোর জন্য মেসির জন্য আলাদা করে শক্তি নিয়োগ করতে নারাজ! কথাটা চমকানোর মতোই। কিন্তু তাদের কোচ সাফেত সুসিচের চিন্তা জোনাল মার্কিংয়ে দলকে খেলানো। ম্যান টু ম্যান মার্কিংয়ে নয়। তাই মেসির ওপর আলাদা করে চোখ রাখার বিষয়টিও আসে না। ‘আমার জন্য এটা একটা ঝামেলার ব্যাপার। কিন্তু শুধু মেসিকে পাহারা দেয়ার জন্য একজন খেলোয়াড় নিয়োজিত করে রাখা আমাদের পক্ষে কঠিন ব্যাপার।’ বসনিয়ান কোচ বলেছেন, ‘মেসি তাতে হয়তো একটু বেশি স্বাধীনতা পাবে। তাই তার পায়ে যখনই বল যায় তখনই তার কাছে পৌঁছে যাওয়ার মতো একজন খেলোয়াড় দরকার আমাদের।’ সেই দায়িত্বটা হয়তো থাকবে ২১ বছরের ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার মুহাম্মদ বেসিচ।
বসনিয়ার আক্রমণে থাকছে একজন স্ট্রাইকার। তিনি ম্যানচেস্টার সিটির এডিন জেকো। বসনিয়ার ইতিহাসের সর্বোচ্চ স্কোরার তিনি। আর তাদের দলের মাঝমাঠ সামলাতে থাকবে ৫ জন। আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে অভ্যস্ত ফিফা র্যাং কিংয়ের ২১তম দলটি। র্যাং কিংয়ের পঞ্চম দল আর্জেন্টিনার বিপক্ষে সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টাতে তারা পিছিয়ে, তা হল অভিজ্ঞতার ঘাটতি বিশেষ করে বড় আসরে খেলার। যদিও উয়েফা জোন থেকে এবারের চতুর্থ সর্বোচ্চ ৩০ গোল করেই ব্রাজিলে এসেছে বসনিয়া। বিশ্বকাপ ইতিহাসের ৭৭তম দল হিসেবে টুর্নামেন্টে অভিষেক হচ্ছে তাদের। আর শুরুতেই মুখোমুখি আর্জেন্টিনার। যাদের সঙ্গে ১৯৯৮ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ৫-০ গোলে ও ২০১৩ সালে বাছাইপর্বের ম্যাচে ২-০ গোলে জয় পেয়েছিল মেসিরা। এমন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে মাঠে নেমে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করছে আর্জেন্টিনা।
প্রোব/এহ/খেলা ১৫.০৬.২০১৪

১৫ জুন ২০১৪ | খেলা | ১৩:০৮:১৯ | ১০:৫০:৩০