A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

সাম্বা বালিকারা মাতাবে দুনিয়া | Probe News

সাম্বা বালিকারা মাতালো দুনিয়া

Samba dance (3).jpgপ্রোবনিউজ, ডেস্ক : ফুটবলের জন্য সারা পৃথিবীতে জনপ্রিয় ব্রাজিল। ফুটবলের ইতিহাসের সঙ্গে ব্রাজিলের ঐতিহ্যবাহী সাম্বা নাচও বিখ্যাত। ব্রাজিলে বিশ্বকাপের আয়োজন হচ্ছে- সাম্বা নাচ না হলে জমবে কী! এবারের বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাও পাওলোর নিউ করিন্থিয়ানস স্টেডিয়ামে নাচতে বিশ্বের শতকোটি দর্শককে হতাশ করবেন না সাম্বা বালিকারা। স্বল্প বসনে তারা সংগীতের তালে তালে শরীরের নাচুনির সঙ্গে নাচিয়ে তুলবেন স্টেডিয়ামে উপস্থিত প্রতিটি মানুষকে। শুধু কি তাই! টিভি সেটের সামনে বসা সারা পৃথিবীর মানুষদের উদোম প্রায় শরীরের ভুবন ভোলানো নাচ দেখাবে ব্রাজিলের সাম্বা বালিকারা।

যে কারও সামনে ‘ব্রাজিলের নাচ’ নামটি উচ্চারণ করলে চোখের সামনে ভেসে ওঠে সাম্বা বালিকাদের। বিশ্বে এমন কোন মানুষ নেই যিনি ব্রাজিলের নাম জানেন, আর সাম্বার নাম
Samba dance2.jpgশোনেনি বা এর নাচের ধরন কি তা জানেন না। আমাদের এ নাচ নগ্নতার এক রকম বহিঃপ্রকাশ হলেও এর সঙ্গে মিশে আছে এক নির্মম ইতিহাস। এ ধারা চলে এসেছে
দাসপ্রথার সময় থেকে। এই ঐতিহ্যবাহী নাচের মূলে রয়েছে আফ্রিকায়। সেখান থেকে পশ্চিম আফ্রিকায় দাসপ্রথার মাধ্যমে এর বিস্তার ঘটেছে। তারপর সাম্বা হয়ে উঠেছে বিশ্বময় ব্রাজিলের প্রতীক হিসেবে।

94319883-samba-dancers.jpgব্রাজিলের সংস্কৃতির সবচেয়ে জনবহুল ও জনপ্রিয় এ ধারা। একদিকে বিশ্বকাপ ফুটবল, দুনিয়া কাঁপানো সব খেলোয়াড়ের পায়ের ছন্দ অন্যদিকে সাম্বা- এসবই লাখ লাখ দর্শককে আকৃষ্ট করেছে ব্রাজিল। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে অসংখ্য মানুষ ছুটে গেছে। যদিও তাদের কোন দল নেই বিশ্বকাপে, তবু সেখান থেকে বহু মানুষ জমায়েত হয়েছে ব্রাজিলে। শেষ মুহূর্তে তারা টিকিট সংগ্রহের কাজ করছেন। যদি না-ই মেলে টিকিট তাহলে কোন জায়ান্ট স্ক্রিনের সামনে সমবেত হবে তারা। উল্লেখ্য, ব্রাজিল সফরে তাদের জন্য নেই কোন ভিসার প্রয়োজন। নিজের দেশের মতো আফ্রিকানরা ব্রাজিল যাওয়া-আসা করতে পারে। সাও পাওলোতে দক্ষিণ আফ্রিকার পরামর্শমূলক একটি সংস্থার এক কর্মকর্তা বলেছেন, দলে দলে দক্ষিণ আফ্রিকার মানুষ যাচ্ছে ব্রাজিলে। তাদের বেশির ভাগেরই শখ সাম্বা বালিকাদের নৃত্য দেখার।

Samba dance4.jpgছয় বছর ধরে এ বিশ্ব আয়োজন ও সাম্বা দেখতে প্রস্তুতি নিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়েরনার ট্রিলফ। অবশেষে তার খায়েশ মিটতে চলেছে। এজন্য ট্রাভেল এজেন্সিগুলো মাসের পর মাস প্রস্তুতি সম্পন্ন করে ব্যবসা সাজিয়েছে। বিভিন্ন রাস্তার ধারে সাম্বা ধাঁচে গড়ে উঠেছে রেস্তরাঁ। সেসব রেস্তরাঁর নাম দেয়া হয়েছে সাম্বা গ্রুপের নামে। রেস্তরাঁগুলোতে বাজছে সাম্বা নাচের গান। এক নস্টালজিয়া তা গ্রাস করছে ভক্তদের। মৌমাছির মতো উড়ে এসে তারা বসে যাচ্ছেন রেস্তরাঁয়। অন্যদিকে, জুস বা অন্য কোন খাবার খেতে খেতে চোখের সামনে ভাসিয়ে তুলছেন সাম্বার উন্মাতাল নাচ।

প্রোব/এহ/খেলা ১২.০৬.২০১৪

১২ জুন ২০১৪ | খেলা | ১৬:১৩:৫৭ | ১৪:০৭:১৭