A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

প্রতিযোগীতায় পিছিয়ে পড়ছে বাংলাদেশ | Probe News

যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি পোশাক রপ্তানি

প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ছে বাংলাদেশ

নতুন প্রতিযোগী হিসেবে এগিয়ে যাচ্ছে তুরস্ক ও ভারত


Garments11.jpgপ্রোবনিউজ, ঢাকা: যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে একদিকে দেশ হিসেবে প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ পিছিয়ে পড়ছে, অপরদিকে বাংলাদেশের প্রতিযোগীর সংখ্যাও বাড়ছে। ইউনাইটেড স্টেটস ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড কমিশনের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে স্থানীয় গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি)।
এর প্রেক্ষিতে অর্থনীতিবিদ ও রপ্তানি সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রপ্তানি প্রতিযোগিতায় সক্ষমতা হারাচ্ছে বাংলাদেশ। এতে মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদে বাজার হারানোর আশঙ্কাও রয়েছে।
সম্প্রতি সিপিডি’র প্রকাশিত ‘স্টেট অব দ্যা বাংলাদেশ ইকোনোমি ইন ফিসক্যাল ইয়ার ২০১৪’ শীর্ষক এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, চলতি অর্থ বছরের জুলাই-মার্চ মেয়াদে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে সর্বোচ্চ ১৬ দশমিক ১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি নিয়ে শীর্ষে রয়েছে ভিয়েতনাম। যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ভিয়েতনাম বাংলাদেশের পুরোনো প্রতিযোগী হলেও নতুন প্রতিযোগী হিসেবে সেখানে প্রবেশ করেছে তুরস্ক এবং ভারত। এমনকি চলতি অর্থ বছরের ওই একই মেয়াদে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে ১২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে তুরস্ক। আর ১০ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত।
অথচ, ওই একই সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি হয়েছে মাত্র ৮ দশমিক ৪ শতাংশ। যদিও বাংলাদেশের অবস্থান ভাল রয়েছে চীন ও কম্বোডিয়া ও ইন্দোনেশিয়র তুলনায়। দেখা গেছে, চীনের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২ দশমিক ২ শতাংশ এবং কম্বোডিয়ার প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২ দশমিক ৬ শতাংশ।
ওই প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের নীট এবং ওভেনের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বেশি নাজুক অবস্থানে রয়েছে ওভেন। দেখা গেছে, নির্দিষ্ট ওই সময়ের মধ্যে নীট পোশাক রপ্তানিতে ১৪ দশমিক ৩ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হলেও ওভেনে প্রবৃদ্ধি অর্জন হয়েছে মাত্র ৬ দশমিক ৫ শতাংশ। এর বিপরীতে ওভেন পোশাক রপ্তানিতে ভিয়েতনামের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৫ দশমিক ৮ শতাংশ, তুরস্কের ৭ দশমিক ৯ শতাংশ এবং ভারতেরও ৭ দশমিক ৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। ফলে প্রতিযোগীতায় বাংলাদেশের বাজার হারনোর ঝুঁকির মাত্রা ক্রমেই বেড়ে চলছে বলে মন্তব্য করেন সিপিডি’র সিনিয়র গবেষণা পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন এবং রপ্তানিকারকদের সংগঠন বাংলাদেশ এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইএবি)’র সভাপতি আবদুস সালাম মুর্শেদী।
আবদুস সালাম মুর্শেদী বলেন, তাজরীন গার্মেন্টেসের অগ্নিকান্ড এবং রানা প্লাজার ধস দুটো ঘটনাই বাংলাদেশের জন্যে বড় ব্যয়বহুল অভিজ্ঞতা। এর বিনিময়ে প্রতিযোগিতার মুখে পড়েছে বাংলাদেশ। আবার সক্ষমতায়ও টিকে থাকতে পারছে না। ফলে বাজার হারানোর ঝুঁকি থেকেই যাচ্ছে।
আর ড. ফাহমিদা খাতুন প্রোব’কে বলেন, এমনিতেই যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশর পণ্যের উচ্চ মাত্রার করের ঝুঁকি রয়েছে। এর পরে প্রতিযোগীতায় সক্ষমতা হারালে মধ্য এবং দীর্ঘমেয়াদে বাজার হারানোর আশঙ্কার বাইরে নয় বাংলাদেশ।
এদিকে ইউরোপিয় ইউনিয়নের বাজারে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে বাংলাদেশ অনেকটাই সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে সিপিডি’র ওই প্রতিবেদনে। এতে বলা হয়েছে, ২০১৩-১৪ অর্থবছরের জুলাই-মার্চ মেয়াদে ইউরোপের বাজারে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে সর্বোচ্চ ২৭ দশমিক ৩ শতাংশ প্রবৃদ্ধি নিয়ে কম্বোডিয়া শীর্ষে থাকলেও দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। ওই সময়ে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৪ দশমিক ৬ শতাংশ। ইউরোপের বাজারে ওই একই সময়ে ভিয়েতনামের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৬ দশমিক ৪ শতাংশ, ভারতের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫ দশমিক ২ শতাংশ এবং তুরস্কের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১ দশমিক ৪ শতাংশ।
প্রোব/শর/পি/অর্থনীতি/০৩.০৬.২০১৪

৩ জুন ২০১৪ | অর্থনীতি | ১৩:৫৮:১৫ | ১১:৪৪:১৯

অর্থনীতি

 >  Last ›