A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

‘ধানমন্ডি খেলার মাঠ দখলমুক্ত করে নাগরিকদের রক্ষা করুন’ | Probe News

‘ধানমন্ডি খেলার মাঠ দখলমুক্ত করে নাগরিকদের রক্ষা করুন’

 

Dhan 11.JPGপ্রোবনিউজ, ঢাকা : ধানমন্ডি খেলার মাঠে এখনো নির্মাণ কাজ চলছে। অথচ শেখ জামাল ক্লাব কর্তৃপক্ষ আদালতের কাছে জানিয়েছে মাঠের ভেতর সকল নির্মাণ কাজ বন্ধ রয়েছে। মাঠের মূল দরজা ডিসিসি খুলে দিলেও তা আবার বন্ধ করে দিয়েছে শেখ জামাল ক্লাব। আবার আদালত বার বার বিব্রতবোধ করায় মামলার শুনানির তারিখও পরিবর্তন হচ্ছে। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউজে ধানমন্ডি মাঠ রক্ষা কমিটি আয়োজিত ‘ধানমন্ডি মাঠ: অতীত, বর্তমান এবং ?’ শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা এসব কথা বলেছেন।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ধানমন্ডি মাঠ রক্ষা কমিটি সভাপতি স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনর (বাপা) যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাবিব, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু, গ্রীণ ভয়েজের সভাপতি আলমগীর কবিরসহ বিভিন্ন পরিবেশবাদী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এতে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ।
সভাপতির বক্তব্যে আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেন, ‘ধানমন্ডি মাঠের নাম শেখ জামাল করা হলে তো কারও আপত্তি থাকার কথা নয়। সরকারীভাবে শেখ জামাল খেলার মাঠ ঘোষণা করুন।’ তিনি আরো বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী একজন পরিবেশ সচেতন মানুষ। প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ ধানমন্ডি খেলার মাঠ দখলমুক্ত করে নাগরিকদের রক্ষা করুন।’
স্থপতি ইকবাল হাবিব সংবাদিকদের জানান, ‘প্রধানমন্ত্রীর পরিবার সমস্ত কিছু জনগণের জন্য বিলিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু কতিপয় দখলদার ধানমন্ডি মাঠকে দখল করে শেখ জামালের নাম ব্যবহার করে ব্যবসা করছে। সম্প্রতি শেখ জামালের ম্যুরালে কালি লেপন করেছে কুচক্রীমহল। প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ এমন রাষ্ট্রদ্রোহী কাজের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের তদন্ত করে বের করুন। যাতে বঙ্গবন্ধু পরিবারকে নিয়ে এমন কাজ কেউ করার সাহস না পায়।’
তিনি আরো বলেন, ‘জনগণের এই মাঠ জনগণকে ফিরিয়ে দিতে ব্যর্থ হয়েছে আদালত, ডিসিসি, এলজিআরডি ও পুলিশ। মাঠ দখলের সঙ্গে এসব প্রতিষ্ঠানের যারা জড়িত রয়েছে তাদেরকেও বিচারের সম্মুখিন হতে হবে।’ জনগণকে নিয়ে মাঠে প্রবেশ করার দায়ে যে মামলা হয়েছে তার কোন তদন্ত হয়নি। জামিনে চার পরিবেশ আন্দোলনকারী বেরিয়ে আসলেও সেটা বাতিল করা হয়নি।
স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেন, ‘এ নিয়ে চারবার কোর্ট পরিবর্তন করেছি। প্রত্যেকবার আদালত বিব্রত হচ্ছেন। এটর্নি জেনারেলও সময় নিয়েছেন। ক্লাব কর্তৃপক্ষের উকিল উপস্থাপন করছেন, আমরা নাকি শেখ জামাল নামের বিরোধিতা করছি। শেখ জামালের নামে মাঠের নাম হলে বিরোধিতা করবো কেন? শেখ জামালের নামে সড়কের নামকরণ করা হলেও সমস্যা নেই।’
উল্লেখ্য, গত দুবছর ধরে শেখ জামাল ক্লাব উচ্চ আদালতের নির্দেশনা উপেক্ষা করে মাঠে সাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ করে রেখেছিল। এ নিয়ে এলাকাবাসীদের সঙ্গে নিয়ে আন্দোলন করছে পরিবেশবাদী ৫০টি সংগঠন। গত ১০ এপ্রিল সর্বসাধারণকে সঙ্গে নিয়ে মাঠে প্রবেশ করে পরিবেশবাদীরা। এতে পরিবেশবাদী চার নেতাসহ অজ্ঞাতনামা দুই শতাধিক নেতার বিরুদ্ধে মামলা করে শেখ জামাল ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এলাকাবাসী ও পরিবেশবাদীদের আন্দোলনের মুখে বাধ্য হয়ে গত ২৪ এপ্রিল সর্বসাধারণের জন্য খেলার মাঠ উন্মুক্ত করে দিয়েছে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন (ডিসিসি) দক্ষিণ। বর্তমানে মাঠের প্রবেশ মুখ বন্ধ করে দিয়ে ছোট দরজা খুলে দেয়া হয়েছে এবং ইউনিফর্ম পরিহিত নিরাপত্তাকর্মীর পাহাড়া বসানো হয়েছে।
প্রোব/এহ/পি/জাতীয় ৩১.০৫.২০১৪

৩১ মে ২০১৪ | জাতীয় | ১৫:৩৭:৪৩ | ১৮:৩০:২২

জাতীয়

 >  Last ›