A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

৩ দফা দাবিতে হিলি স্থলবন্দরে অনির্দিষ্টকালের জন্য আমদানি-রফতানি বন্ধ প্রোবনিউজ,হিলি: বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) 'হয়রানি' বন্ধসহ ৩ দফা দাবিতে বন | Probe News

৩ দফা দাবিতে
হিলি স্থলবন্দরে অনির্দিষ্টকালের জন্য আমদানি-রফতানি বন্ধ

Hili-Port.jpgপ্রোবনিউজ,হিলি: বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) 'হয়রানি' বন্ধসহ ৩ দফা দাবিতে বন্দর ব্যবহারকারী সব সংগঠন দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে অনির্দিষ্টকালের জন্য আমদানি-রফতানি বন্ধ করে দিয়েছে ।
এতে বুধবার থেকে বন্দরে পণ্য খালাস ও পণ্য ভর্তিসহ সব কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে। বন্দরের ওয়্যার হাউজসহ ভারত অংশে আটকা পড়েছে অনেক পণ্যবাহী ট্রাক।
একই দাবিতে সোমবার এক ঘণ্টা ও মঙ্গলবার ২ ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করে বন্দর ব্যবহারকারী ওই সংগঠনগুলো।
বুধবার 'পানামা হিলি পোর্ট লিংক লিমিটেডের' সামনে থেকে সংগঠনগুলো একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এটি স্থলবন্দরের শূন্য রেখা হয়ে হাকিমপুর উপজেলা পরিষদে গিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে আবারও ওই ৩ দফা দাবি সম্মিলিত স্মারকলিপি পেশ করে।
পরে বেলা ১২টায় বন্দরের সামনে বাংলাহিলি সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আবুল কাশেম আজাদের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশ করে তারা।সমাবেশে আব্দুর রহমান লিটন বলেন, "হিলি বন্দরে আমদানিকৃত পণ্যের ম্যানিফেস্টে বিজিবি অবৈধভাবে সিল ও এন্টি করছে, ফলে অনেক সময় অতিবাহিত হচ্ছে। এতে অনেক আমদানিকারক এ বন্দর দিয়ে পণ্য আমদানিতে নিরুৎসাহিত হচ্ছেন। এতে বন্দরে রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ কমে যাচ্ছে।"হিলি বন্দরকে বাঁচানোর জন্য 'বিজিবি কর্তৃক হয়রানির' প্রতিবাদে লাগাতার ধর্মঘট শুরু হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, "যতদিন আমাদের এ ৩ দফা দাবি মেনে না নেয়া হবে ততোদিন আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।"
৩ দফা দাবি হলো—বিজিবি কর্তৃক আমদানিকৃত পণ্যের ম্যানিফেস্টে সিল, ৩ বিজিবি অধিনায়কের অপসারণ এবং বন্দর হতে খালাসকৃত পণ্য বিজিবির বিভিন্ন চেকপোস্টে আটক করে বৈধ কাগজপত্র থাকার পরও হয়রানি ও আমদানিকারক ও সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টকে অবহিত না করে মামলা দায়ের।
বন্দর ব্যবহারকারী সংগঠনগুলো হলো—বাংলাহিলি কাস্টমস সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশন, আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপ, বাংলাহিলি ট্রাক মালিক গ্রুপ, বাংলাহিলি ট্রাকচালক গ্রুপ, বাংলাহিলি কুলি শ্রমিক বন্দোবস্তকারী, বাংলাহিলি সমন্বয়কারী পরিষদ এবং বাংলাহিলি আন্তঃজেলা ট্রাক বন্দোবস্তকারী।
অবিলম্বে তাদের যৌক্তিক দাবি বিজিবি মেনে নেবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।
এছাড়া সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাহিলি সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের বন্দরবিষয়ক সম্পাদক জামিল হোসেন চলন্ত, শ্রমিক নেতা নুরু সর্দার, শাহাদৎ হোসেন, সিঅ্যান্ডএফ কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সাইফুল ইসলাম, ট্রাকচালক গ্রুপের সভাপতি সাজ্জাদ হোসেন প্রমুখ।
হাকিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কমকতা মোকলেসুর রহমান জানান, এ এলাকার কোথাও যেন কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে।
প্রোব/শামা/জাতীয় ১৪.০৫.২০১৪

১৪ মে ২০১৪ | জাতীয় | ১৮:১২:৪৪ | ১২:০২:৫৯

জাতীয়

 >  Last ›