A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

পানে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ‘স্যালমোনেলা’র উপস্থিতি | Probe News

পানে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ‘স্যালমোনেলা’র উপস্থিতি

ইউরোপের বাজারে পান-সবজি রপ্তানিতে সরকারের নতুন প্রকল্প

Betel Leaf.jpgপ্রোবনিউজ, ঢাকা: যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপের বাজারে পান ও সবজি রপ্তানিতে বিরাজমান সংকট সমাধানে প্রকল্প হাতে নিতে যাচ্ছে সরকার। কৃষি মন্ত্রণালয়ের কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশনের (কেজিএফ) অর্থায়নে এ প্রকল্পের বাস্তবায়নসহ কারিগরী সহায়তা দেবে ‘আইসিডিডিআরবি’। কৃষি মন্ত্রণালয় ও আইসিডিডিআরবি সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।
জানা গেছে, মানব স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ‘স্যালমোনেলা’ বাংলাদেশের পানে উপস্থিত থাকার কারণে ২০১১ সালে পান আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে ইউরোপের দেশগুলো। বিশেষ করে ওই বছরের ২১ অক্টোবর বাংলাদেশের পানের ওপর রেপিড এলার্ট জারি করে ইয়োরোপিয়ান কমিশন। এক্ষেত্রে ইউরোপিয়ান কমিশনের হয়ে দায়িত্ব পালন করে ‘রেপিড এলার্ট সিস্টেম ফীড এন্ড ফুড’ (আরএএসএফএফ)। এর প্রেক্ষিতে ২০১৩ সালের ১৩ জানুয়ারি থেকে পান রফতানিকারকদের ‘নিরাপদ খাদ্য মর্মে সনদ প্রদান বন্ধ রেখেছে কৃষি সম্প্রসারন অধিদফতরের প্লান্ট প্রোটেকশন উইং।
এর পরেও নানা কৌশলে সবজির সঙ্গে মিথ্যা ঘোষণায় পান রপ্তানি করে আসছিল রপ্তানিকারকরা। তাও পশ্চিমা দেশগুলোর স্বাস্থ্য বিভাগের নজরে আসলে বাংলাদেশ থেকে সব ধরনের সবজি আমদানি বন্ধের হুমকি দেয় তারা। সবজি আমদানি বন্ধের এই হুমকিতে অনিশ্চিত হয়ে পরে বাংলাদেশের প্রায় এক হাজার ১০০ কোটি টাকার সবজি রপ্তানি আয়।
এদিকে পশ্চিমা দেশগুলোর এ হুমকিতে আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে পান রপ্তানি বন্ধ নিশ্চিত করতে বাণিজ্য সচিবকে চিঠি দিয়েছেন যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাহবুব আহমেদকে ১৭ এপ্রিলে লেখা এক চিঠিতে পান রফতানি বন্ধের এ নিশ্চয়তা চেয়েছেন হাইকমিশনার মিজারুল কায়েস।
আইসিডিডিআর,বি সূত্র জানায় আগামী জুলাই নাগাদ শুরু হতে পারে তিন বছর মেয়াদী এ প্রকল্পের কাজ। প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে এক কোটি ৭০ লাখ টাকা।
জানা গেছে, প্রকল্পের আওতায় প্রথমে ট্রিটমেন্ট স্ট্র্যাটেজি নিয়ে কাজ করা হবে। বিশেষ করে স্বল্পমেয়াদে পানকে স্যালমোনেলা ব্যাকটেরিয়া মুক্ত করতে অর্গানিক কেমিকেল মিশ্রিত একটি সলিউশন তৈরি করা হবে। অর্গানিক কেমিকেল মিশ্রিত এ সলিউশনে পান ধুয়ে রপ্তানি করা সম্ভব হবে বলে জানান আইসিডিডিআর’বি সূত্র। এর পরে সরবরাহ চেইনের কোন কোন পয়েন্টে পান স্যামোনেলা আক্রান্ত হচ্ছে তা নির্দিষ্ট করে দীর্ঘ মেয়াদে পানকে ব্যকটেরিয়া মুক্ত রাখার প্রক্রিয়াকে টেকসই রূপ দেয়া হবে বলেও জানান এ সূত্র।
এদিকে পান রফতারি এই জটিলতায় অর্থবছরের ব্যাবধানে পান রফতানির আয় কমেছে প্রায় সাড়ে ২৪ শতাংশ। রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর হিসেব মতে ২০১১-১২ সালে বাংলাদেশ থেকে পান রফতানি হয়েছে ৫০ দশমিক ৪৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। টাকার সমমূল্যে যা প্রায় ৪০০ কোটি টাকা। অথচ, ২০১২-১৩ অর্থবছরে এখাতে আয় হয়েছে ৩৮ দশমিক ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব ড. সাইদুর রহমান সেলিম বলেন, স্যালমোনেলা মুক্ত পান রপ্তানি নিশ্চিত করতে প্রকল্প হাতে নেয়ার নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে রপ্তানিকারকরাই সমস্যা দীর্ঘায়িত করছেন। নানা ভাবে মিসলীড করছেন। এর আগেও আইসিডিডিআর’বি উদ্ভাবিত এ প্রযুক্তি ব্যয় রপ্তানিকারকরা বহন করবে এমন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু পরে তারা বলছেন, রফতানিকারকরা কেন এ ব্যয় বহন করবে?
প্রোব/শর/পি/ অর্থনীতি/ ৯.৫.২০১৪

৯ মে ২০১৪ | জাতীয় | ১৫:০৪:১৯ | ১৫:৩১:৪৮

জাতীয়

 >  Last ›