A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

অপরাধীদের বাধ্যতামূলক অবসরই যথেষ্ট নয়: সুজন | Probe News

সেভেন মার্ডার
অপরাধীদের বাধ্যতামূলক অবসরই যথেষ্ট নয়: সুজন

suzaanপ্রোবনিউজ, ঢাকা: নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনায় অভিযুক্তদের বাধ্যতামূলক অবসরই যথেষ্ট নয়। কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন সুশাসনের জন্যে নাগরিক-সুজন।
বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে সুজন আয়োজিত ‘গুম ও অপহরণ: নাগরিক উদ্বেগ ও করণীয়’ শীর্ষক এক গোলটেবিল আলোচনায় সংস্থাটির নেতৃবৃন্দ এ দাবি জানিয়েছেন।
তারা বলেন, বাংলাদেশে গুম ও অপহরণ এক সর্বনাশা মাত্রা লাভ করেছে। এতে নাগরিক সমাজ আজ ক্ষুব্ধ, ব্যথিত ও শঙ্কিত।
সুজন সভাপতি এম হাফিজ উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে ও সংস্থাটির সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার-এর সঞ্চালনায় বিষয়ের ওপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও সুজন নির্বাহী সদস্য আলী ইমাম মজমুদার। তিনি বলেন, সমাজে নানা কারণে অপরাধ হতে পারে। কিন্তু বর্তমানে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার নিস্ক্রিয়তায়ই বাড়ছে অপরাধের সংখ্যা। আর সরকার ব্যর্থ হচ্ছে প্রকৃত অপরাধীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে।
নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুনের ঘটনার প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ইতিমধ্যেই ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তিন জনকে বাধ্যতামূলক অবসর প্রদান করা হয়েছে। তবে অপরাধ প্রমাণিত হলে শুধু বাধ্যতামূলক অবসরই যথেষ্ট নয়। বিচারের আওতায় এনে দিতে হবে কঠোর শাস্তি। এমনকি ঘটনার নেপথ্যে যদি কোন প্রভাবশালী মহলও জড়িত থাকে তাদেরকেও বিচারের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানান সাবেক এই মন্ত্রিপরিষদ সচিব।
সুজন-এর নির্বাহী সদস্য এএসএম শাহজাহান বলেন, যে সমাজে আইনের শাসন নেই, সে সমাজে সমস্যার সমাধানও নেই। আর আইন প্রয়োগকারী সংস্থা যদি নিজেই আইন ভঙ্গ করে, তখন আইনের প্রতি জনগণের শ্রদ্ধা কমে যায়। তখন অপরাধ মহামারী আকার ধারণ করে।
গুম ও অপহরণ বন্ধে নাগরিকদের সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সংস্থাটির অপর নির্বাহী সদস্য সৈয়দ আবুল মকসুদ। তিনি বলেন, প্রয়োজনে সরকারকে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে চাপ প্রয়োগ করতে হবে।
একটি সুষ্ঠু ও প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনের মাধ্যমে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসেনি বলেই সরকার আইনশৃঙ্খলা ও রাজনীতির ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে বলে মন্তব্য করেন সাবেক নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) এম. শাখাওয়াত হোসেন। তিনি বলেন, রাজনীতিকে কালো টাকা ও পেশিশক্তি মুক্ত করা না গেলে গুম ও অপহরণ বন্ধ হবে না। আর রাজনীতিকে দুর্বৃত্তায়নের হাত থেকে মুক্তির দাবি জানিয়েছেন অধ্যাপক অজয় রায়।
বিএনপি’র চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ইনাম আহমেদ চৌধুরী বলেন, গুম ও অপহরণের পাশাপাশি বর্তমানে যে কোন বিরোধী মতের দমন বেড়েই চলেছে। এর সাথে সরকার ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সম্পৃক্ততা রয়েছে।
নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদর রহমান মান্না বলেন, নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনায় একজন মন্ত্রীর ছেলে ও মেয়ের জামাইয়ের জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু এখনো ওই ব্যক্তি কিভাবে মন্ত্রীর পদে বহাল রয়েছেন তা জাতি জানতে চায়।
সভাপতির বক্তব্যে এম হাফিজউদ্দিন খান বলেন, র্যাব কী উদ্দেশ্যে গঠন করা হয়েছিল। আর এখন সংস্থাটির সদস্যরা কী কী অপকর্ম করছে জনগণ তাও জানতে চায়।
গোলটেবিল বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন সংস্থার সহ-সম্পাদক জাকির হোসেন, নির্বাহী সদস্য বিচারপতি কাজী এবাদুল হক, জাতীয় কমিটির সদস্য মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, সুজন নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি আব্দুর রহমান ও সুজন নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটির সভাপতি এহসানুল করিম বাবুল প্রমুখ।
প্রোব/শর/পি/জাতীয়/ ৮.৫.২০১৪

৮ মে ২০১৪ | জাতীয় | ২১:৫৭:১০ | ১৬:০৪:২৫

জাতীয়

 >  Last ›