A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

দেশে সার্বিক মূল্যস্ফীতি কমেছে: বিবিএস | Probe News

দেশে সার্বিক মূল্যস্ফীতি কমেছে: বিবিএস

inflation.jpgপ্রোবনিউজ, ঢাকা: গত এপ্রিলে দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতি কমে ৭ দশমিক ৪৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। যা মার্চের তুলনায় দশমিক শূন্য ২ শতাংশ কম এবং আগের বছরের এপ্রিলের তুলনায় প্রায় দশমিক ৯০ শতাংশ কম। অন্যদিকে জাতীয় মজুরী হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ দশমিক ৮৫ শতাংশে। মূল্যস্ফীতি হালনাগাদ তথ্য সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে বুধবার এ তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)।
রাজধানীর আগারগাঁওস্থ বিবিএস কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে এপ্রিল মাসের ভোক্তার মূল্য সূচক, মূল্যস্ফীতির হার এবং মজুরি হার সূচকের নানা দিক তুলে ধরেন সংস্থার মহাপরিচালক গোলাম মোস্তফা কামাল। তিনি জানান, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, সরকারের সঠিক নীতি এবং পণ্য সরবরাহ চেইন স্বাভাবিক থাকার কারণে ক্রমান্বয়ে কমছে মূল্যস্ফীতি।
বিবিএস’র হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে, এপ্রিলে দেশে খাদ্য পণ্যের সার্বিক মূল্যস্ফীতি ছিল ৮ দশমিক ৯৫ শতাংশ। মার্চ মাসে তা ছিল ৮ দশমিক ৯৬ শতাংশ। অন্যদিকে ওই মাসে খাদ্য পণ্যের পাশাপাশি খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতিও কমার তথ্য দিয়েছে বিবিএস। সংস্থাটির হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে এপ্রিলে খাদ্য বহির্ভূত খাতে মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৫ দশমিক ২৩ শতাংশ। মার্চে যা ছিল ৫ দশমিক ২৬ শতাংশ।
এছাড়া গ্রাম ও শহর ভিত্তিক মূল্যস্ফীতি বিশ্লেষণে বিবিএস জানায়, মার্চ মাসে গ্রামীণ পর্যায়ে সার্বিক মূল্যস্ফীতি ছিল ৭ দশমিক ২১ শতাংশ। এপ্রিল মাসে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৭ দশমিক ১৯ শতাংশে। একই ভাবে শহর অঞ্চলে মার্চ মাসে মূল্যস্ফীতি ছিল ৭ দশমিক ৯৮ শতাংশ। এপ্রিলে তা কমে হয়েছে ৭ দশমিক ৯৬ শতাংশ।
বিবিএস আরো জানায়, চাল, ডাল, আটা, শাক-সবজি, ফল, মসলা, তেল, দুধ ও তামাক জাতীয় পণ্যের ক্ষেত্রে এপ্রিলে মূল্যস্ফীতি হয়েছে দশমিক শূন্য ২ শতাংশ। যা মার্চে ছিল শূন্য দশমিক ১৩ শতাংশ। এছাড়াও পরিধেয় বস্ত্র, বাড়ী ভাড়া, আসবাবপত্র, চিকিৎসা সেবা, পরিবহন খরচ, শিক্ষা উপকরণসহ খাদ্য বহির্ভূত অন্যান্য পণ্যের ক্ষেত্রে এপ্রিলে মূল্যস্ফীতি হয়েছে দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ। যা মার্চে দশমিক ১৭ শতাংশ ছিল বলে বিবিএস’র হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে।
তবে গত বছরের ওই সময়ের তুলনায়ও মূল্যস্ফীতি উল্লেখযোগ্য হারে কমার তথ্য দিয়েছে বিবিএস। সংস্থাটির হিসাবে বলা হয়েছে ২০১৩ সালের এপ্রিলে দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতি ছিল ৮ দশমিক ৩৭ শতাংশ। যা ২০১৪ সালের এপ্রিলে এসে কমে দাঁড়িয়েছে ৭ দশমিক ৪৮ শতাংশে।
এদিকে বিবিএস বলছে, মার্চ মাসে দেশের সার্বিক মজুরী হার ছিল ৯ দশমিক ৪১ শতাংশ থাকলেও তা এপ্রিলে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ দশমিক ৮৫ শতাংশে।
প্রসঙ্গত, চলতি অর্থ বছরে দেশের সার্বিক মূল্য স্ফীতি ৭ শতাংশে নামিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছিল সরকার। কিন্তু দেখা যাচ্ছে অর্থ বছরের দুই মাস বাকি থাকা অবস্থায় দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতি ৭ দশমিক ৪৮ শতাংশে ঠেকেছে। তবে অর্থ বছরের শেষ নাগাদ সরকারের লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ৭ শতাংশে মুল্যস্ফীতি নামিয়ে আনা সম্ভব হবে বলে আশা বাদ ব্যাক্ত করেছেন গোলাম মোস্তফা কামাল।
উল্লেখ্য, গত বছর অগাস্ট মাস থেকে ২০০৫-০৬ অর্থবছরকে ভিত্তিবছর ধরে মূল্যস্ফীতির তথ্য প্রকাশ করে আসছিল পরিসংখ্যান ব্যুরো। এর আগে প্রায় এক বছর ধরে ১৯৯৫-৯৬ এবং ২০০৫-০৬ দুই ভিত্তিবছরের হিসাবেই মূল্যস্ফীতির তথ্য প্রকাশ করতো সংস্থাটি।


প্রোব//শর/পি/ অর্থনীতি/৭.৫.২০১৪

৭ মে ২০১৪ | অর্থনীতি | ১৫:৩৭:৪৩ | ২১:২৪:৪৮

অর্থনীতি

 >  Last ›