A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

সমন্বয়হীনতা হেফাজতে: চার গ্রুপে বিভক্ত কর্মসূচি | Probe News

মতিঝিল ট্র্যাজেডির এক বছর

সমন্বয়হীনতা হেফাজতে: চার গ্রুপে বিভক্ত কর্মসূচি

hefazot 1 year1
বেলায়েত হোসাইন, প্রোবনিউজ:
৫ই মে সোমবার মতিঝিল ট্র্যাজেডির একবছর । ২০১৩ সালের এ দিন গভীর রাতে শাপলা চত্বরে হেফাজত ইসলামের সমাবেশকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্থলা বাহিনীর সঙ্গে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় আহত ও নিহতের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয় । এ দিবসকে কেন্দ্র করে হেফাজত ইসলামের নেই কোন সমন্বিত কর্মসূচি। গত ১ বছরে বিভিন্ন কারণে হেফাজত নেতৃবৃন্দের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে মতদ্বৈততা িএবং বিভিন্ন গ্রুপ। একারণে ঐকবদ্ধ কর্মসূচি না দিয়ে ভিন্ন ভিন্নভাবে পালিত হচ্ছে মতিঝিল ট্র্যাজেডির বছরপূর্তি। হেফাজতের ঢাকা ও চট্টগ্রামের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে পাওয়া গেছে সমন্য়হীনতা বিভিন্ন তথ্য।

ঢাকা মহানগর হেফাজত ইসলামীর আহবায়কের দায়িত্বে রয়েছেন জমিয়ত উলামায়ে ইসলামের সহ সভাপতি নূর হোসাইন কাসেমী। বর্তমানে সংগঠনটির ঢাকা মহানগরীর কার্যক্রমও পরিচালিত হয় কাসেমীর বারিধারাস্থ মাদরাসা থেকে। এদিকে ঢাকায় হেফাজতের আরো দুটি দুর্গ বলে খ্যাত মূফতি আমিনীর লালবাগ মাদরাসা ও হাফেজ্জী হুজুরের কামরাঙ্গীর চর মদারাসা। লালবাগ অংশের নেতৃতে রয়েছেন আমীনির দল ইসলামী ঐক্যজোট। কামরাঙ্গীর চর অংশের নেতৃত্ব দিচ্ছে হাফেজ্জী হুজুরের দল খেলাফত আন্দোলন। এছাড়া নিজেদেরকে হেফাজতের অভিচ্ছেদ্য অংশ বলে দাবি করছেন শায়খুল হাদীসের দল বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ। এই চার অংশে নেই কোন ঐক্য।

মাতিঝিল ট্র্যাজেডির একবছর পূর্তি উপলক্ষ্যে ঢাকা মহানগরের উদ্যোগে দোয়া দিবসের আহবান করেছেন মহানগর আহবায়ক নূর হোসাইন কাসেমী। রোববার বেলা ১২টায় বারিধারাস্থ কাসেমীর মাদরাসায় অনুষ্ঠিত হবে এ কর্মসূচি।
জানা গেছে, ইসলামী ঐক্যজোট (লালবাগ), খেলাফত আন্দোলন (কামরাঙ্গীর চর), বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ (পল্টন) এই তিন দলের কোন সিনিয়র নেতাই অংশ নিচ্ছেন না কাসেমীর ডাকা দোয়া দিবসে। তারা পালন করছেন ভিন্ন ভিন্ন কর্মসূচি। এর নেপথ্যে রয়েছে চার অংশের সমন্বয়হীনতা। ঢাকা মহানগর হেফাজতের জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে ।

এদিকে মাতিঝিল ট্র্যাজেডির একবছর পূর্তি উপলক্ষ্যে সকাল ৯টায় কামরাঙ্গীর চর মাদ্রাসা থেকে শাপলা চত্বরের অভিমুখে পতাকা মিছিল বের করবে হাফেজ্জী হুজুরের দল খেলাফত আন্দোলন। তারা যাচ্ছেন না বারিধারার দোয়া দিবস কর্মসূচিতে। এ ব্যাপারে হেফাজতের যুগ্ম-মহাসচিব ও খেলাফত আন্দোলনের মহাসচিব মাওলানা জাফরুল্লাহ খান প্রোবনিউজকে বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে অসুস্থ, তাই যাচ্ছি না।’

আলাদাভাবে কর্মসূচি পালন করছেন হেফাজত সংশ্লিষ্ট আরেক রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ। বিকাল ৩টায় পল্টনের দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে দলটি। তারাও যাচ্ছেনা বারিধারার দোয়া দিবস কর্মসূচিতে। দলটির মহাসচিব ও ঢাকা মহনাগর হেফাজতের যুগ্ম সদস্য সচিব মাহফুজুর রহমান প্রোবনিউজকে বলেন, ‘আমাদের দলের আমীর দেশের বাইরে রয়েছেন। আমিও অন্য কোথাও যাবো বলে ঠিক করিনি। তাছাড়া, আমাদের মাঝে তো কিছু ভুল বোঝাবোঝি তো আছেই। তবে আমাদের চারটি ইসলামী দলের কর্মসূচি এমনভাবে সাজানো যে কোনটা কোনটার সাথে সাংঘর্ষিক না।’
৫ই মে কোন কর্মসূচি পালন করছে না মুফতী আমীনির দল ইসলামী ঐক্যজোট। এমনিক অন্য কারো কর্মসূচিতেও যোগ দিচ্ছে না তারা। তবে ৬ মে লালবাগ মাদরাসায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে দলটি। এ ব্যাপারে কথা বলতে দলের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদের কাউকেই ফোনে পাওয়া যায়নি।

এ সমন্বয়হীনতার কথা স্বীকার করেছেন ঢাকা মহানগর হেফাজতের সদস্য সচিব জুনায়েদ আল হাবীব। প্রোবনিউজের সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় তিনি বলেন, ‘একমাত্র বারিধারার প্রোগ্রামটি ঢাকা মহানগরের উদ্যোগে আয়োজিত। অন্যরা কেন এখানে আসবে না এটা তারাই ভালো জানে। তারা যে কর্মসূচি পালন করছে তা নিজ উদ্যোগে করছে। আমাদের সাথে তেমন কোন আলাপ হয়নি তাদের।’

জানা গেছে, এই চার অংশের কেউই হেফাজতের মূল কেন্দ্র চট্টগ্রামের নির্দেশনা মেনে চলছে না। তবে এ ব্যাপারে কথা বলতে চাইলে মাওলানা শফির নেতৃত্বাধীন অনুসারীরা কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি। অবশ্য চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদরাসায়ও ট্র্যাজিডির একবছর পূর্তি উপলক্ষ্যে আয়োজন করা হয়েছে দোয়া ও আলোচনা সভার।

প্রসঙ্গত, রাসূল (স.)কে অবমাননাকারী নাস্তিক ব্লগারদের ফাঁসির দাবিতে ২০১৩ সালের ৫ই মে হেফাজতে ইসলাম ঢাকা অবরোধ কর্মসূচি এবং ঢাকার মতিঝিল শাপলা চত্বরে তাদের দ্বিতীয় সমাবেশের আয়োজন করে। ৫ ও ৬ই মে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে এই সংগঠনের কর্মীদের ব্যাপক সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন নিহত হয় এবং আহত হয় অনেকে।
এর একমাস আগে ২০১৩ সালের ৬ এপ্রিল হেফাজতে ইসলাম সারা দেশ থেকে ঢাকা অভিমুখে লং মার্চ করে এবং ঢাকার মতিঝিল শাপলা চত্ত্বরে তাদের প্রথম সমাবেশ করে। এই সমাবেশে প্রচুর লোকের সমাগম হয়। ওইদিনও দেশের বিভিন্ন স্থানে সংগঠনটির কর্মীদের সাথে আইনশৃঙ্খলারক্ষী বাহিনীর সংঘর্ষ হয় এবং কিছু হতা-হতের ঘটনা ঘটে।

উল্লেখ্য,, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ বাংলাদেশের কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক একটি সংগঠন, যেটি ২০১০ সালের ১৯ জানুয়ারি হাটহাজারী মাদ্রাসার পরিচালক শাহ আহমদ শফীর নেতৃত্বে গঠিত হয়। ২০১৩ সালে ইসলাম ও রাসুলকে কটুক্তিকারী নাস্তিক ব্লগারদের ফাঁসি দাবী করে ব্যপক আন্দোলন ও সমাবেশ শুরু করে। এ প্রেক্ষিতে তারা ১৩ দফা দাবি উত্থাপন করে।
প্রোব/বিএইচ/পি/জাতীয়/০৪.০৫.২০১৪

৫ মে ২০১৪ | রাজনীতি | ০০:০৬:১৬ | ১৩:৪৭:২৩

রাজনীতি

 >  Last ›