A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

মাহফুজউল্লাহ-জাফরুল্লাহ ও টোয়েন্টিফোরের বিষয়ে শুনানি ১২ জুন | Probe News

মাহফুজউল্লাহ- জাফরুল্লাহ ও টোয়েন্টিফোরের বিষয়ে শুনানি ১২ জুন

Mahfuz14.jpgপ্রোবনিউজ, ঢাকা: ট্রাইব্যুনালের মামলার বিষয় নিয়ে মন্তব্য করায় সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ, গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের আনিত আদালত অবমাননার অভিযোগের বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী ১২ জুন তারিখ ধার্য করেছে ট্রাইব্যুনাল।
বুধবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল এ তারিখ ধার্য করেন।

সকালে টোয়েন্টিফোরের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আসাদুজ্জামান, সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ’র পক্ষে আইনজীবী তাজুল ইসলাম এবং ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর পক্ষে তিনি নিজেই শুনানি করেন।

অন্যদিকে আদালত অবমাননার আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন প্রসিকিউটর তুরিন আফরোজ। পরে এ বিষয়ে শুনানি শেষে আদালত আদেশের জন্য তারিখ ধার্য করে কার্যক্রম মুলতুবি করেন।
শুনানিতে সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহসহ টোয়েন্টিফোর তাদের কার্যক্রমের জন্য ক্ষমা চাইলেও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী তার বক্তব্যে অটুট থাকেন।

গত বছরের ২৬ সেপ্টেম্বর গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহসহ টোয়েন্টিফোরের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ কেন আনা হবে না জানতে চেয়ে ব্যাখ্যা দেয়ার নির্দেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল।

গত ২৪ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রারের কার্যালয় বরাবর প্রসিকিউশনের পক্ষ থেকে বেসরকারি চ্যানেল টোয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষসহ আটজনকে বিবাদী করে অভিযোগ দাখিল করা হয়।

প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম, তুরিন আফরোজ, সুলতান মাহমুদ সীমন, তাপস কান্তি বল, সাবিনা ইয়াসমিন খান মুন্নি ও রেজিয়া সুলতানা চমন এ আবেদন দাখিল করেন।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইন ১৯৭৩ এর ১১(৪) ধারা মোতাবেক কেন তাদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হবে না তা, জানতে চেয়ে রুল জারির আবেদন করা হয়।
একই সঙ্গে তাদের অভিযুক্ত করে এক বছরের কারাদণ্ড অথবা জরিমানা করার আবেদন করা হয়।

আবেদনে বাকি বিবাদীরা হলেন- চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, নির্বাহী পরিচালক, হেড অব প্রোগ্রাম, মুক্তবাক নামন অনুষ্ঠানের প্রডিউসার এবং ওই অনুষ্ঠানের সঞ্চালক মাহমুদুর রহমান মান্না।

প্রসিকিউশনের অভিযোগে বলা হয়, গত ১৮ সেপ্টেম্বর টোয়েন্টিফোরের রাত ১১টার ‘মুক্তবাক’ নামক টকশোতে ট্রাইব্যুনালের বিচার বিষয়ে এই মন্তব্য করেন।

টকশোতে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, “বিচারপতি শামীম হাসনাইন সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পক্ষে সাক্ষ্য দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কেন তাকে দেয়া হয়নি। তাহলে কি বিচারের বানী নিভৃতে কাদঁবে না?”

এছাড়া টকশোতে সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী সাফাই সাক্ষীদের নিয়ে মন্তব্য করারও অভিযোগ করে প্রসিকিউশন।

গত ১০ অক্টোবর ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ট্রাইব্যুনালে তার লিখিত জবাব দাখিল করেন এবং তিনি নিজে শুনানি করতে আবেদন করেন।
প্রোব/খোআ/জাতীয় ৩০.০৪.২০১৪

৩০ এপ্রিল ২০১৪ | জাতীয় | ১৫:২৩:৪৭ | ১৭:৩২:০৪

জাতীয়

 >  Last ›