A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

বাংলাদেশে জার্মান বিনিয়োগের আহবান প্রধানমন্ত্রীর | Probe News

বাংলাদেশে জার্মান বিনিয়োগের আহবান প্রধানমন্ত্রীর

PM.jpgপ্রোব নিউজ, ঢাকা: বাংলাদেশে আরো বেশি জার্মান বিনিয়োগের আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার জার্মান পার্লামেন্টের একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সাক্ষাতকালে তিনি এ আহবান জানান।
বাংলাদেশের উন্নয়নে অতীতের মতো জার্মান সরকার, জনগণ এবং রাজনীতিক নেতৃত্বের সহায়তা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
ডাগমার জি ভোর্লের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের জার্মান প্রতিনিধি দলটি মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার কার্যালয়ে দেখা করে।
প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুবুল হক শাকিল সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে সরকার কাজ করছে জানিয়ে অতীতের মতো জার্মান সরকার, জনগণ ও রাজনীতিক নেতৃত্বের সহায়তা কামনা করেছেন শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার লক্ষ্য দারিদ্র্য, ক্ষুধা ও নিরক্ষরতামুক্ত বাংলাদেশ। যেখানে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের অবস্থান থাকবে না। সে লক্ষ্য পূরণের জন্য আমার সরকার কাজ করে যাচ্ছে।
বিশ্বমন্দার মধ্যে ২০০৯ সালে সরকার গঠন করে বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, তারপরও অর্থনীতি শক্তিশালী ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে আছে।
সরকার খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত এবং সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনির ব্যাপক বিস্তারের ফলে দারিদ্র্যের হার ৪০ শতাংশ থেকে ২৬ শতাংশে নেমে আসার কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী।
ডাগমার ভোর্ল বাংলাদেশের সঙ্গে জার্মানির দীর্ঘদিনের সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্কের কথা তুলে ধরে বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি মধ্যম আয়ের দেশ হিসাবে উন্নীত হওয়ার যে লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন, সে লক্ষ্য পূরণে বিদ্যমান চ্যালেঞ্জ পূরণে তার দেশ সহায়তা করবে।
সহস্রাব্দের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের উল্লেখ করার মতো সাফল্যের প্রশংসাও করেন জার্মান প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।
প্রধানমন্ত্রী এসময় স্বাধীনতার পর থেকে বাংলাদেশের সঙ্গে জার্মানির বন্ধুত্বের কথা তুলে ধরেন। বঙ্গবন্ধুর নেয়া নানা উদ্যোগ বাস্তবায়নে জার্মান সরকারের সহায়তার কথাও স্মরণ করেন তিনি।
১৯৭৫ সালে ১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সময় জার্মানিতে ছিলেন শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহানা। প্রধানমন্ত্রীর স্বামী প্রয়াত ড. ওয়াজেদ মিয়া তখন জার্মানির কার্লসরুয়ে ইউনিভার্সিটিতে গবেষণা করছিলেন।
সাক্ষাৎ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অ্যাম্বাসেডর অ্যাট লার্জ এম জিয়াউদ্দিন, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব আব্দুস সোবহান শিকদার এবং প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী।
প্রোব/মুআ/জাতীয় ২৯.০৪.১৪

২৯ এপ্রিল ২০১৪ | জাতীয় | ১৮:১৬:৩২ | ১১:৩৯:৩৪

জাতীয়

 >  Last ›