A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

এমনি একটু রাগ করেছি, কার কাছে পদত্যাগ করবো: এরশাদ | Probe News

ershad.jpgএমনি একটু রাগ করেছি, কার কাছে পদত্যাগ করবো: এরশাদ


বেলায়েত হোসাইন, প্রোবনিউজ: পদত্যাগ করতে হলে তো প্রেসিডিয়াম সভা ডাকতে হবে। তাছাড়া কার কাছে পদত্যাগ করবো? এমনি একটু রাগ করেছিলাম আরকি। নিজের পদত্যাগের গুজব প্রসঙ্গে প্রোবনিউজকে কথাগুলো বললেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

মহাসচিবের কাছে পদত্যাগের চিঠি পাঠিয়েছেন এরশাদ- গণমাধ্যমে প্রকাশিত এমন খবরের বিষয়টিও অস্বীকার করেন এরশাদ। তিনি বলেন, ‘আমি কারো কাছে চিঠি পাঠায়নি।’

সোমবার বেলা ১২টার দিকে জাতীয় পার্টির একাধিক নেতা সাংবাদিকদের ফোন করে জানান, জাপার চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করছেন এরশাদ। কিছুক্ষণের মধ্যেই তিনি কাকরাইলস্থ পার্টি অফিসে এসে পদত্যাগের ঘোষণা দেবেন। এ খবর পেয়ে সাংবাদিকরা ছুটে যায় কাকরাইল অফিসে। কিন্তু সেখানে গিয়ে কোন আলামত পাওয়া যায়নি।

এরপর সেখান থেকে তারা ছুটে যায় জাপা চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয়ে। জানা যায়, এরশাদ পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ঠিকই। এজন্য তিনি সাড়ে ১২টায় আফিসে আসেন।

নাম প্রকাশে অফিসে অনিচ্ছুক পার্টির একজন যুগ্ম-মহাসচিব প্রোবনিউজকে জানান, ‘‘গতকালের যৌথসভার খবর গনমাধ্যমে নেতিবাচকভাবে প্রকাশিত হওয়ায় স্যার (এরশাদ) খুব মনক্ষুন্ন হয়েছেন। একারণে সকালে তিনি ফোন করে বলেন-‘ আমি দেখবো তারা কিভাবে পার্টি চালায়।’ বেলা সাড়ে ১২টার দিকে পদত্যাগের ঘোষণা দেয়ার জন্য এরশাদ উত্তেজিত অবস্থায় বনানী অফিসে আসেন।’

এদিকে পদত্যাগের খবরে আগে থেকেই সেখানে ভিড় করে নেতাকর্মীরা। তারা পদত্যাগ না করার জন্য এরশাদকে অনুরোধ জানায়। নেতা কর্মীদের অনুনয়-বিনয়ের পর পদত্যাগ না করে সোয়া দুটার দিকে অফিস ত্যাগ করেন এরশাদ।
জানা গেছে, বনানী অফিস থেকে বের হয়ে তিনি যান ইউনাইটেড হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন রুহুল আমিন হাওলাদারের সঙ্গে দীর্ঘ সময় কাটান। হাওলাদারের সাথে নিজের কিছু কষ্টের কথা শেয়ার করেন এরশাদ।

এরশাদের ঘনিষ্ট সূত্র জানায়, হাওলাদারের সঙ্গে সাক্ষাত শেষে তিনি চলে আসেন বারিধারার নিজ বাসভবন প্রেসিডেন্ট পার্কে। সেখানে প্রায় ঘন্টাব্যাপি বৈঠক করেন দলের মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর সঙ্গে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, স্যারের সাথে মে দিবসের কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। পতদ্যাগের খবরটি সম্পূর্ণ ভুয়া বলে উড়িয়ে দেন তিনি।

প্রসঙ্গত, রোববার এরশাদের আহবানে গুলশানের স্পেকট্রা কনভেনশেন সেন্টারে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও এমপিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত যৌথ সভায় স্ত্রী রওশনসহ অন্যান্য শীর্ষ নেতারা এরশাদের কর্মকাণ্ডের তীব্র সমালোচনা করেন। যদিও এরশাদ ছিলেন চুপচাপ। বৈঠক সূত্রের দাবি, অনেক দিন পর তার আহবানে সাড়া দিয়ে নেতারা বৈঠকে আসায় এরশাদ খুশিই হয়েছিলেন। এজন্য সমালোচনার কোন জবাব দেননি। কিন্তু মিডিয়ায় বৈঠকের নেতিবাচক খবর প্রকাশ হলে তিনি মনোক্ষুন্ন হন এবং মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েন। এরপর রাতেই তিনি পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন।

প্রোব/বিএইচ/রাজনীতি/২৮.০৪.২০১৪

২৮ এপ্রিল ২০১৪ | জাতীয় | ১৯:২৫:০৯ | ১১:৪০:৫১

জাতীয়

 >  Last ›