A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

‘অবৈধ বাংলাদেশী’দের ভারত ছাড়া করার ঘোষণা মোদির | Probe News

narendra modi‘অবৈধ বাংলাদেশী’দের ভারত ছাড়া করার ঘোষণা মোদির
বিজেপি ক্ষমতায় এলে পরিকল্পনার বাস্তবায়ন শুরু হতে পারে: বিশ্লেষক

বাধন অধিকারী, প্রোবনিউজ: অতীতের ধারাবাহিকতায় আবারও হিংসা আর ঘৃণা ছড়ালেন ভারতের সম্ভাব্য আগামি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সাম্প্রদায়িক জাতীয়তাবাদের দর্শনকে নির্বাচনী হাতিয়ার করতে গিয়ে আবারও টানলেন ভারতে থাকা কথিত অবৈধ বাংলাদেশীদের প্রসঙ্গ। ‘ভারতে ঢুকে আসা বাংলাদেশিরা বিছানা, বালিশ গুছিয়ে তৈরি থাকুন। ১৬ মের পর তাদের এদেশ থেকে তাড়ানো হবে।’ রোববার সন্ধ্যায় পশ্চিমবঙ্গের শ্রীরামপুরে এক জনসভায় এ কথা বলেন তিনি।

বিজেপি দীর্ঘদিন ধরে পশ্চিমবঙ্গ ও আসামে দুই কোটি মানুষ বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশ করেছে বলে অভিযোগ করে আসছে। সভায় মোদি বলেন, ‘বহু রাজ্যেই বলা হয়, বিহারীরা অতিথি। কিন্তু রাজধানী দিল্লিসহ ভারতের বহু রাজ্যে বাংলাদেশ থেকে আসা অনুপ্রবেশকারী রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গেও রয়েছে। তারা ভারতের অন্য প্রদেশের মানুষের রুজি, রোজগারে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক আমেনা মহসিন মনে করেন, মোদির এই প্রচারণা কেবল ভোট বাড়ানোর কৌশল নয়; ভারতকে আরও বেশি করে হিন্দুত্ববাদের দিকে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনারই অংশ। প্রোবনিউজকে তিনি বলেন, কেবল ধর্মীয় কারণে নয়, অর্থনৈতিক কারণেও ভারতের নিম্নবর্গের মানুষ মোদির এই প্রচারণায় উদ্বুদ্ধ হবে। বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়া মানুষদের শত্রু বিবচেনা করবে।

ওই নির্বাচনী প্রচারণায় মমতা ব্যানার্জির উদ্দেশে নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘উড়িষ্যা, বিহার, উত্তর প্রদেশের মানুষদের উনি অতিথি বলছেন। কিন্তু ভোট ব্যাংক হওয়াতে বাংলাদেশিদের প্রশ্রয় দিচ্ছেন তিনি। ১৬ মের পর তাদের ভারত থেকে তাড়ানো হবে। বিহারীরা আমার ভাই। তাদের আমি বুকে আগলে রক্ষা করব।’ বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে হিন্দুরা নিগৃহীত হচ্ছে উল্লেখ করে মোদি বলেন, ভারত ছাড়া তাদের থাকার আর কোনো জায়গা নেই। সেকারণে ভারতেই তাদের থাকার ব্যবস্থা করা হবে।

নরেন্দ্র মোদির ঘোষণা নিয়ে কথা হয় কবি-লেখক-সংস্কৃতিকর্মী এবং রাজনীতিবিশ্লেষক অরূপ রাহীর সঙ্গেও। তিনি বলেন, “বিজেপি একটা ফ্যাসিস্ট দল। নিজ দেশের জনগণের মৌলিক অধিকার পূরণের কোন কর্মসূচি তাদের নাই। সেটা তারা চায় না। কারণ তারা কর্পোরেট ইন্ডিয়া চায়। কিন্তু বেকারত্ব, কর্মহীনতা , অনাহার, ইতাদি সমস্যটনিয়ে কথা না বলে ভোট পাওয়া সম্ভব না। তাই তারা তথাকথিত অবৈধ বাংলাদেশীদেরকেই সমস্যার কারন হিসেবে তুলে ধরে সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জন করে ভোটে জিততে চায় । এর ভেতর দিয়ে তারা তাদের বাংলাদেশ বিরোধী এবং সাম্প্রদায়িক রাজনীতিও চর্চা করে। মোদির ভাষণে তারই প্রকাশ ঘটেছে। আর কিছু নয়। ”

তবে অধ্যাপক আমেনা মহসিন মনে করেন, নির্বাচন জিতেই মোদি থেমে যাবেন এমন নয়। তিনি বলেন, “যদি বিজেপি ক্ষমতায় আসে, তো বাংলাদেশীদের দেশ ছাড়া করার পরিকল্পনা বাস্তবায়নের দিকেই এগোবে তারা। এটাই হিন্দুত্ববাদের দর্শন।”
প্রোব/বান/দক্ষিণ এশিয়া ২৮.০৪.২০১৪

 

২৮ এপ্রিল ২০১৪ | দক্ষিণ এশিয়া | ১৪:৪৯:২৩ | ২১:০৭:০৩

দক্ষিণ এশিয়া

 >  Last ›