A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

ফের প্রশ্নের মুখোমুখী সুনীল ও ববি হাজ্জাজ | Probe News

Sunil-Suvo-Ray.jpgফের প্রশ্নের মুখোমুখী সুনীল ও ববি হাজ্জাজ


বেলায়েত হোসাইন,
প্রোবনিউজ: অফিসের কর্মকর্তারা কিভাবে নির্বাচনে করার সুযোগ পায়। সুনীলের মত একজন অফিস স্টাফ কিভাবে এরশাদের সঙ্গে টক-শোতে যায়। প্রতিমাসে ববি হাজ্জাজকে যে ১০ লাখ টাকা দেয়া হয়, তাতে পার্টির কি লাভ হয়। সোমবার জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও এমপিদের যৌথসভায় এরশাদের প্রেস এন্ড পলিটিক্যাল সেক্রেটারি সুনীল শুভরায় ও মুখপাত্র ববি হাজ্জাজকে এভাবেই তুলো ধুনো করেন বিরোধী দলীয় নেতা রওশনসহ দলের সিনিয়র নেতারা। গুলশানের স্প্রেকটা কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত জাপার সভা সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। 


সুনীল তো বেতনভুক্ত কর্মচারি
জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম ও এমপিদের যৌথসভায় অংশগ্রহণ একাধিক সূত্র জানায়, সভার শুরুর দিকেই বক্তব্য রাখেন বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ। এরশাদের বিভিন্ন কর্মকান্ডের সমালোচনা ও পার্টির অভ্যন্তরীণ সমস্যা নিয়ে কথা বলেন তিনি। এ সময় সুনীল শুভ রায়কে ইঙ্গিত করে রওশন বলেন, ‘যে ব্যক্তি অফিসের স্টাফ সে কিভাবে নির্বাচন করার সুযোগ পায়। সে তো নির্বাচন করার কোন যোগ্যতাই রাখেনা। কারণ, সে বেতনভুক্ত কর্মচারি। পার্টির সিনিয়র নেতাদের সামনেও তার বসা উচিত নয়।’

রওশন ক্ষুব্ধ হয়ে বলেন, অফিসের কর্মচারি-কর্মকর্তারা বেতনভুক্ত। পার্টির জন্য তাদের কোন দরদ নেই। তারা বিভিন্ন সময় রাজনীতির ক্ষেত্রে সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। পার্টির সিনিয়র নেতাদের সঙ্গেও তারা খারাপ ব্যবহার করে। এমনকি আমার সম্পর্কেও বিরূপ মন্তব্য করে । এসব তো আমার কানে আসে। এইসব কর্মচারিদের ব্যাপারে সতর্ক থাকা উচিত।’

এদিকে সুনীল শুভরায়ের সমালোচনা করে প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ বলেছেন, ‘সুনীল একজন অফিস স্টাফ হয়ে কিভাবে এরশাদের সঙ্গে টকশোতে যায়।’ সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে অফিস স্টাফদের দুর্ব্যবহারের প্রসঙ্গ তুলে ধরে ক্ষোভ প্রকাশ করেন কাজী ফিরোজ রশীদ।

উল্লেখ্য, প্রেসিডিয়াম সদস্য শুনীল শুভরায়কে নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হলেও তিনি এ সভায় অনুপস্থিত ছিলেন।

ববি কি রিসার্চ করে?
এদিকে এরশাদের মুখপাত্র ববি হাজ্জাজের কড়া সমালোচনা করলেন দলের আরেক প্রেসিডিয়াম সদস্য এসএম ফয়সাল চিশতী। তিনি এরশাদের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘প্রতি মাসে রিসার্চের কথা বলে ববি হাজ্জাজকে ১০ লাখ টাকা দেয়া হয়। এই টাকা যায় কোথায়? সে কি রিসার্চ করে? এতে পার্টি কি উপকৃত হয়।’ যদিও চিশতীর এসব প্রশ্নের কোন জবাব দেন নি এরশাদ, আর ববিও ছিলেন না এ অনুষ্ঠানে।

আমারও কিছু ভুল হয়েছে: এরশাদ
সভা সূত্রে জানা যায়, এভাবে একের পর এক নেতারা এরশাদের সামনে তাদের জমে থাকা ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকেন। এরশাদ পুরো সময়টা জুড়ে চুপচাপ ছিলেন। তবে রওশনের বক্তব্যের মাঝে এরশাদ বলে উঠেন, ‘আমারও কিছু ভুল হয়েছে।’

প্রোব/বিএইচ/পি/ রাজনীতি/ ২৭.০৪.২০১৪

 

২৭ এপ্রিল ২০১৪ | রাজনীতি | ১৯:৩৯:১৩ | ১৪:৪৬:৫৯

রাজনীতি

 >  Last ›