A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

ইউক্রেন সঙ্কটকে ঘিরে আরও কঠোর নিষেধাজ্ঞার হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের: ভাবিত নয় রাশিয়া | Probe News

Ukraine25.jpgপ্রোবনিউজ, ডেস্ক: ইউক্রেনে উত্তেজনা কমাতে ‘রুশ ব্যর্থতায়’ ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভকে টেলিফোন করে এ উদ্বেগের কথা জানান তিনি। হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি বলেন, ইউক্রন সংকট নিরসনের জন্য গত সপ্তাহে জেনেভায় অর্জিত সমঝোতা বাস্তবায়নে রাশিয়া ব্যর্থ হলে দেশটির ওপর আরো বেশি নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে। তবে এই হুমকির আগেই রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ বলেছেন, ইউক্রেন ইস্যুতে পাশ্চাত্যের আরেক দফা নিষেধাজ্ঞা মোকাবিলার জন্য মস্কো প্রস্তুত রয়েছে। মঙ্গলবার সংসদের নিম্নকক্ষে বার্ষিক প্রতিবেদন পেশের সময় তিনি এ কথা বলেন।

ইউক্রেনের পাশ্চাত্যপন্থী অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ওলেক্সান্ডার তুরচিনভ দেশটির পূর্বাঞ্চলে রুশপন্থী অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে আবার অভিযান শুরু করার নির্দেশ দেয়ার পর এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করলেন কেরি। মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দু’দিনের কিয়েভ সফরের পর অভিযান শুরুর নির্দেশ দেন তুরচিনভ। এ ছাড়া, তিনি এমন সময় এ নির্দেশ দিলেন যখন ইউক্রেনের পূর্ব সীমান্তে মোতায়েন রয়েছে হাজার হাজার রুশ সেনা। ইউক্রেন নিয়ে সম্পর্কের এই টানাপড়েন শীতল যুদ্ধ শেষ হওয়ার পর প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের মধ্যকার উত্তেজনাকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে নিয়ে গেছে।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন পদস্থ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে ল্যাভরভকে ফোন করেন কেরি। এ সময় তিনি অভিযোগ করেন, ইউক্রেনের উত্তেজনা প্রশমনে ইতিবাচক পদক্ষেপ নিচ্ছে না রাশিয়া। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি করেন, ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে রুশপন্থী অস্ত্রধারীরা আরো বেশি সরকারি ভবন দখলে নিচ্ছে এবং সাংবাদিকসহ বেসামরিক নাগরিকদের পণবন্দি করছে।

গত সপ্তাহে জেনেভায় রাশিয়া, আমেরিকা, ইউক্রেন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের শীর্ষ কূটনীতিকদের মধ্যে এক বৈঠকে ইউক্রেনের সব অস্ত্রধারীকে নিরস্ত্র করার ব্যাপারে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু রাশিয়া ওই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে ব্যর্থ হয়েছে বলে টেলিফোনালাপে কেরি অভিযোগ করেন। রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী অবশ্য কেরিকে বলেছেন, ইউক্রেনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে তার দেশের কোনো হাত নেই।

মেদভেদেভ আরও বলেছেন, রুশ সরকার দেশের অর্থনীতি ও নাগরিকদের রক্ষার জন্য প্রস্তুত। তিনি আরও বলেন, আমদানি নির্ভরতা কমাতে নিষেধাজ্ঞা রাশিয়ার জন্য এক ধরনের সুযোগ। দিমিত্রি মেদভেদেভ বলেন, “পাশ্চাত্যের তথা বিদেশি কোম্পানিগুলোর সঙ্গে সহযোগিতা আমরা বন্ধ করবো না, কিন্তু আমাদেরকে অবন্ধু সুলভ পদক্ষেপের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। আমি নিশ্চিত যে, নিষেধাজ্ঞার প্রভাব আমরা কমিয়ে আনতে পারবো।” তিনি বলেন, “আমরা আমাদের নাগরিকদেরকে রাজনৈতিক খেলার পণবন্দীতে পরিণত হতে দেব না।”

ইউক্রেনের রুশপন্থী সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধের জের ধরে ক্রিমিয়া অঞ্চল রুশ ফেডারেশনে যোগ দেয়ার পর পাশ্চাত্যের সঙ্গে মস্কোর টানাপড়েন বেড়েছে। ইউক্রেনে এখনও রাশিয়ার সমর্থনে মিছিল হচ্ছে। ইউক্রেনে চলমান বিক্ষোভে মস্কো সমর্থন দিচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে রাশিয়ার বিরুদ্ধে কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছে আমেরিকা ও পাশ্চাত্যের দেশগুলো। তবে রাশিয়া মার্কিন অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।

প্রোব/বান/আন্তর্জাতিক ২৩.০৪.২০১৪

 

২৩ এপ্রিল ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ১৩:৪৬:৪৯ | ১৯:০৩:৫১

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›