A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়ে অব্যাহতি পেলেন গয়েশ্বর | Probe News

BNP News.jpgপ্রোবনিউজ, ঢাকা: আদালতের বিষয়ে নিজের মন্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়সহ তিনজনকে আদালত অবমাননার অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিলেন হাইকোর্ট।

রোববার হাইকোর্টে গয়েশ্বরসহ অন্য দু’জনের পক্ষে অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী ও ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল গয়েশ্বরের মন্তব্যের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা ও দুঃখ প্রকাশ করে জানান, তারা এ বিষয়ে আদালতে আইনি লড়াইয়ে যেতে চান না।
‘সব কোর্টই এখন মুজিব কোটের পকেটে বন্দি’ বলে বক্তব্য দেয়ায় আদালত অবমাননার অভিযোগে আদালতের তলবে রোববার হাইকোর্টে হাজির হন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়সহ ওই তিনজন। বাকি দু’জন হচ্ছেন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) সহ সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম সালাম ও মহাসচিব ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন।

পরে তিনজনকে আদালত অবমাননার অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়ে রুলের নিষ্পত্তি করে দেন বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি এবিএম আলতাফ হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ। গত ৭ এপ্রিল স্বপ্রণোদিত হয়ে একই বেঞ্চ তাদের তলব করেন।

আদালত নিয়ে দেয়া বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় সকালে হাইকোর্টে হাজির হন।

গত ৬ এপ্রিল জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, জজ কোর্ট, হাইকোর্ট, সুপ্রিম কোর্ট সব কোর্টই এখন মুজিব কোটের পকেটে বন্দী। এই পকেট ছিঁড়তে না পারলে কেউ ন্যায়বিচার পাবে না, বিচারকদের বিবেক জাগ্রত হবে না।

আমার দেশ-এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের মুক্তি ও পত্রিকাটি খুলে দেওয়ার দাবিতে ওই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। বিএনপিপন্থী চিকিত্সকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনের আয়োজক সংগঠন ড্যাবের সহসভাপতি এম সালাম ও মহাসচিব এ জেড এম জাহিদ হোসেনকেও হাইকোর্ট তলব করে।
প্রোব/খোআ/জাতীয় ২০.০৪.২০১৪

 

২০ এপ্রিল ২০১৪ | জাতীয় | ১৪:১৯:২৯ | ১৪:০০:২০

জাতীয়

 >  Last ›