A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

অভিমান নিয়ে চলে গেলেন বশির আহমেদ | Probe News

Bashir ahmed00.jpgপ্রোবনিউজ, ঢাকা : জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পী বশির আহমেদ অভিমান নিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে। ‘মৃত্যুর আগে তিনি পরিবারকে বলে গেছেন, তার লাশ যেন বেশিক্ষণ অপেক্ষা না করে দাফন দেয়া হয়।' কথাগুলো বলছিলেন বশির আহমেদের জামাতা মাসুদ ইকবাল।
শনিবার রাত সাড়ে দশটায় নিজ বাসা মোহাম্মদপুরের জহুরী মহল্লায় মারা যান জনপ্রিয় এই কণ্ঠশিল্পী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। একমাস ধরে ক্যান্সারে গুরুতর আক্রান্ত ছিলেন বশির আহমেদ। শনিবার সন্ধ্যার দিকে তিনি অসুস্থবোধ করেন। হাসপাতালে নেয়ার আগেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
রোববার বাদ জোহর স্থানীয় মসজিদে জানাজা শেষে তাকে তাজমহল রোড়ের করবস্থানে তাকে দাফন করা হবে।
বশির আহমেদের জামাতা মাসুদ ইকবাল প্রোবনিউজকে জানান, বশির আহমেদ ছিলেন ভীষণ অভিমানী। জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত এই শিল্পীর মৃত্যুর পর সরকারের তরফ থেকে খোঁজখবর নিতে কেউ আসেননি।’
মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার স্ত্রী মীনা বশির, ছেলে রাজা বশির ও মেয়ে হুমায়রা বশির-এরা সবাই কন্ঠশিল্পী।
কখনো মেঘ কখনো বৃষ্টি ছবিতে গানের জন্য ২০০৩ সালে শ্রেষ্ঠ গায়ক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান বশির আহমেদ।
১৯৩৯ সালে ১৯ নভেম্বর কলকাতার খিদিমপুরে জন্মগ্রহণ করেন বশির আহমেদ। খুব ছোটবেলা থেকেই তিনি সঙ্গীত পাগল ছিলেন। মাত্র ১৫ বছর বয়সে তিনি ওস্তাদ বেলায়েত হোসেনের কাছে সংগীত চর্চা শুরু করেন। এরপর তিনি মুম্বাই চলে যান, সেখানে উপমহাদেশের প্রখ্যাত ওস্তাদ গোলাম আলী খাঁর কাছে তালিম নেন।
প্রোব/এহ/জাতীয় ২০.০৪.২০১৪

২০ এপ্রিল ২০১৪ | জাতীয় | ১০:২৬:২৪ | ১১:৩০:৩৩

জাতীয়

 >  Last ›