A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

প্রথম ম্যাচে কলকাতার জয় | Probe News

KKR Ipl.jpgপ্রোবনিউজ, ঢাকা: শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে আইপিএলের সপ্তম আসরের প্রথম ম্যাচে মুম্বাইয়ের বিপক্ষে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে কলকাতা নাইট রাইডার্স। নির্ধারিত ২০ ওভারে তাদের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৬৩। কিন্তু গতবারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই দ্রুত রান তুলতে পারছিল না। শেষপর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারের শেষে মুম্বাইয়ের সংগ্রহ সাত উইকেটে ১২২ রান। এবারের আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে গৌতম গম্ভীরের দল ৪১ রানে জিতে শিরোপার অভিযান ভালোই শুরু করল সাবেক চ্যাম্পিয়নরা।
কলকাতা নাইট রাইডার্স : ১৬৩-৫ (২০ ওভার) ক্যালিস ৭২, মণীষ ৬৪। মালিঙ্গা ৪-২৩
মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স : ১২২-৭ (২০ ওভার) অম্বতি রায়ডু ৪৮। সুনীল নারায়ণ ৪-২০
ম্যান অব দ্য ম্যাচ জ্যাক ক্যালিস।
যদিও অধিনায়ক গম্ভীরের ব্যাট এদিন কথা বলল না। দ্বিতীয় ওভারে খাতা না খুলেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন কলকাতা অধিনায়ক। শুরুর এই ধাক্কা বেশ ভালভাবেই সামলে দেন বহুযুদ্ধের ঘোড়া জ্যাক ক্যালিস। সঙ্গী হিসেবে পেয়েছিলেন মণীশ পান্ডেকে। এই জুটি ৯২ বলে ১৩১ রান তুলে কলকাতার জয়ের ভিত গড়ে দেয়। যদিও একসময় ক্যালিস খুবই ধীরগতিতে ব্যাট করতে থাকেন। মনে হচ্ছিল বড় রান তুলতে পারবে না কলকাতা। যদিও শেষপর্যন্ত ৪৬ বলে ৭২ করে মালিঙ্গার বলে ফেরেন ক্যালিস। ৫৩ বলে ৬৪ করা পান্ডেও দ্বীপরাষ্ট্রের বলেই শিকার। শাকিব আল-হাসান করেন মাত্র ১ রান। রবিন উত্থাপ্পা দ্রুত রান তুলতে দক্ষ। তিনিও করেন মাত্র এক রান। শেষ দিকে সূর্যকুমার যাদব চালিয়ে খেলে ৫ বলে ১৩ করেন ৷ সব মিলিয়ে কলকাতা ভালো একটা টার্গেট দেয়। শেষ ৬ ওভারে কলকাতা তোলে ৭৩ রান। মুম্বাইয়ের হয়ে মালিঙ্গা ৪ ওভারে ২৩ রান দিয়ে ৪ উইকেট শিকার করে।
শেষ ছয় ওভারে ঝড় তোলে কলকাতার ব্যাটসম্যানরা। আর মুম্বাইয়ের ব্যাটসম্যানরা শেষ ছয় ওভারেই পথ হারিয়ে ফেলে। জিততে হলে শেষ ছয় ওভারে মুম্বাইকে তুলতে হতো ৭৮ রান। সেই রান তুলতে ব্যর্থ মুম্বাই। সুনীল নারায়ণের স্পিনের মোকাবিলা করতেই তারা বেসামাল ৷নারায়ণের বলের উত্তর খুঁজে পেতে হিমসিম খাওয়ার জোগাড় অনেকেরই। নারায়ণ এখনও মিস্ট্রি বোলার৷ নারায়ণের স্পিনের রহস্য ভেদ করতে না পারে মুম্বাই থেমে যায় ১২২ রানে। শুরুতেই মাইক হাসিকে ফেরান সুনীল নারায়ণ৷ আদিত্য তারে ভালোই এগোচ্ছিলেন। শাকিব তাকে ফেরান। রোহিত শর্মা ও অম্বতি রায়ডু মুম্বাইয়ের ইনিংসকে গড়েছিলেন। রোহিতকে ব্যক্তিগত ২৭ রানে থামতে হয়। রায়ডুকে প্যাভিলিয়নের রাস্তা ধরান সেই সুনিল নারায়নই। হরভজন, কুরি অ্যান্ডারসনের মতো বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান ক্যারিবিয়ান স্পিনের শিকার। সুনিল নারায়নকে যোগ্য সাহায্য করেন মরকেল। দক্ষিণ আফ্রিকান বোলার আগুন ধরান মরু শহরে। শেষপর্যন্ত মুম্বাই সাত উইকেট হারিয়ে থেমে যায় ১২২ রানে। দুদলের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দেন নারায়ণ। চার-চারটি উইকেট নেন তিনি। তবে ম্যাচের সেরা ক্যালিস। কে বলবে টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানানো ‘বুড়ো’ ক্যালিস এখনও কোনো দলের ঘোড়া।
প্রোব/এহ/ খেলা ১৭.০৪.২০১৪

১৭ এপ্রিল ২০১৪ | খেলা | ১১:৩০:২৫ | ০৮:৪৫:৫০