A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ দিয়ে ৬ হাজার মেগাওয়াট সঞ্চালনের করিডোর পাচ্ছে ভারত | Probe News

Power Plant.jpgপ্রোবনিউজ, ডেস্ক: বাংলাদেশের করিডোর ব্যবহার করে ভারতের উত্তর-পূর্ব থেকে পশ্চিম অঞ্চলে ৬ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ নিয়ে যাওয়ার গ্রিড লাইনের রুটের নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে দুই দেশের যৌথ স্টিয়ারিং কমিটি। বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মনোয়ার ইসলাম জানান, ভারতের ত্রিপুরা থেকে আরো ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি আর ভারতকে বিদ্যুতের করিডোর দেয়ার বিষয়ে উভয় দেশ নীতিগতভাবে একমত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে হোটেল রূপসী বাংলায় ‘ভারত-বাংলাদেশ যৌথ স্টিয়ারিং কমিটি অন কো-অপারেশন ইন পাওয়ার সেক্টর’ এর সপ্তম বৈঠক শেষে এ তথ্য জানান তিনি।

মনোয়ার ইসলাম বলেন, ‘ভারত থেকে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করা হচ্ছে। বাণিজ্যিক ভিত্তিতে আরো ৩০ থেকে ৫০ মেগাওয়াট বিদুৎ আমদানির বিষয়ে একমত হয়েছে উভয়পক্ষ।’ তিনি বলেন, ‘এর বাইরে নতুন একটি সঞ্চালন লাইন নির্মাণের মাধ্যমে আরো ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানির বিষয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। এ জন্য যৌথ কারিগরি কমিটি গঠন করা হয়েছে।’

বৈঠকে বাংলাদেশের ভেতর দিয়ে ভারতকে ছয় হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সঞ্চালনের করিডোর দেয়ার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। সম্ভাব্য রুট ধরা হয়েছে অরুণাচল-রাঙ্গিয়ারাওটা-বড়পুকুরিয়া (বাংলাদেশ)-বোরাকপুর। আগামী ছয় মাসের মধ্যে প্রাক সমীক্ষা যাচাই শেষে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। বিদ্যুৎ সচিব জানান, ত্রিপুরা থেকে বিদ্যুৎ আমদানির বিষয়ে টেকনিকেল কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি তিন মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দিলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিদ্যুতের করিডোর দিয়ে বাংলাদেশের কী লাভ হবে এমন প্রশ্নের জবাবে বিদ্যুৎ সচিব বলেন, ‘বিষয়টিতে এখনই লাভ-লোকসান কষা হয়নি।’ রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রসঙ্গে ভারতের বিদ্যুৎ সচিব পিকে সিনহা বলেন, ‘অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন বিদ্যুৎ কেন্দ্রটিতে বাংলাদেশ-ভারত ১৫ শতাংশ করে ৩০ শতাংশ অর্থায়ন করবে। আর ৭০ শতাংশ অর্থ আসবে ঋণের মাধ্যমে।’

বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মনোয়ার ইসলামের নেতৃত্বে বৈঠকে বাংলাদেশি প্রতিনিধি দলে ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক নিলুফার আহমেদ, বিদ্যুৎ বিভাগের যুগ্ম-সচিব আনোয়ার হোসেন, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের সদস্য তমাল চক্রবর্তী ও পাওয়ার গ্রিড অব বাংলাদেশের (পিজিসিবি) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুম আল বেরুরী।

ভারতের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন সে দেশের বিদ্যুৎ সচিব পিকে সিনহা। প্রতিনিধি দলে ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার পঙ্কজ শরণ, ভারতের বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব যুথি আরোরা, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় ডেপুটি হাইকমিশনার সন্দীপ চক্রবর্তী ও এনটিপিসির চেয়ারম্যান অরূপ রায় চৌধুরী প্রমুখ।

প্রোব/বান/জাতীয় ০৪.০৩.২০১৪

৩ এপ্রিল ২০১৪ | জাতীয় | ২০:২১:৩৭ | ১০:৪৫:০২

জাতীয়

 >  Last ›