A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারছে না কৃষিখাতের প্রবৃদ্ধি | Probe News

rice.jpgপ্রোবনিউজ, ঢাকা: রাজনৈতিক সহিংসতা, কৃষি পণ্যের ন্যায্যমূল্য না পাওয়াসহ একাধিক কারণে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারছে না কৃষিখাতের প্রবৃদ্ধি। চলতি অর্থ বছরে এ খাতে প্রবৃদ্ধির হার আড়াই শতাংশের কাছাকাছি থাকতে পারে বলে মনে করছেন অর্থনীতির বিশ্লেষকরা।

আর কৃষিতে কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জিত না হওয়ার কারণেই চলতি অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) লক্ষ্যমাত্রা অর্জন হচ্ছেনা বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা। মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মো. রুস্তম আলী ফরাজীর লিখিত এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেছেন চলতি অর্থবছরে বাজেটে ঘোষিত ৭ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব হবে না। এর হার ৬ দশমিক ৫ শতাংশের কাছাকাছি হবে বলে উল্লেখ করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। কারণ হিসেবে রাজনৈতিক অস্থিরতাকেই দায়ী করেন তিনি।
Agro Pix1এদিকে একই দিনে বিগত ছয় বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন প্রবৃদ্ধি হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) সংস্থাটির হিসাব মতে, অর্থবছর শেষে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ৬ শতাংশে গিয়ে ঠেকবে।
প্রবৃদ্ধি কমার কারণ হিসেবে এডিবি বলছে, ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে রাজনৈতিক অস্থিরতায় অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে অর্থনীতির অভ্যন্তরীণ চাহিদা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বাধাগ্রস্থ হয়েছে বেসরকারি বিনিয়োগ। এছাড়া রাজস্ব আদায়ে ধীরগতি, বাণিজ্য ঘাটতি, রেমিট্যান্স প্রবাহে বাধা এবং রফতানি প্রবৃদ্ধি কমে যাওয়াও এর কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছে এডিবি।
তবে পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের (জিইডি) সদস্য অর্থনীতিবিদ ড. শামসুল আলমের মতে, চলতি অর্থবছরে শিল্পখাত ও সেবা খাতের প্রবৃদ্ধি লক্ষ্যমাত্রার কাছাকাছি অর্জিত হলেও অনেকটাই পিছিয়ে থাকবে কৃষি খাতের প্রবৃদ্ধি। এবং তা আড়াই শতাংশের কাছাকাছি থাকতে পারে।
আর কৃষিতে কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জিত না হওয়ার কারনেই মূলত চলতি অর্থবছরে জিডিপি’র লক্ষ্যমাত্রা অর্জন হচ্ছেনা বলে মনে করছেন ড. শামসুল আলম। একই আশঙ্কা রাষ্ট্রীয় গবেষণা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ডেভলপমেন্ট স্টাডিজের (বিআইডিএস) নির্বাহী পরিচালক ড. মোস্তফা কে. মুজেরির। তিনি বলেন, চলতি বছরে আমনের উৎপাদন ভালো হলেও বোরোর উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন নিয়ে শংকা রয়েছে। এতে ক্রোপ সেক্টরে প্রবৃদ্ধি অর্জন ব্যাহত হতে পারে। এছাড়া আলু উৎপাদনে ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত হয়েছে কৃষক।
Agro Pix2তবে সবকিছুর মূলে রাজনৈতিক অস্থিরতাকেই দায়ী করেন মোস্তফা কে. মুজেরি। তিনি বলেন, আজকে কৃষি পণ্যের বাজার শুধু স্থানীয় এলাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। বিস্তৃত হয়েছে দেশ ছেড়ে আন্তর্জাতিক বাজারে। তাছাড়া কৃষি রূপ নিয়েছে বাণিজ্যিক কৃষিতে। তাই যে কোন ধরনের গোলযোগ আগের তুলনায় বেশি ক্ষতি করছে কৃষি ও কৃষককে। যার ব্যতিক্রম ঘটেনি গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনকেন্দ্রিক রাজনৈতিক সহিংসতায়ও।
হিসেব মতে, গত বছরের ২৫ নভেম্বর জাতীয় সংসদ নিবার্চনের তফসিল ঘোষণার থেকে কোন কোন শুক্রবার, শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিজয় দিবস ছাড়া নির্বাচনের পর পর্যন্ত চলে বিরোধী দলের ডাকা টানা অবরোধ-হরতাল কর্মসূচি। এতে চরমভাবে ব্যহত হয় পরিবহন ব্যবস্থা।
প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ পরিসংখ্যাণ ব্যুরোর হিসাব অনুযায়ী ২০০৮-০৯ অর্থ বছরে কৃষি খাতে প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে ৪ দশমিক ১ শতাংশ। ২০০৯-১০ সালে তা বৃদ্ধি পেয়ে ৫ দশমিক ২ শতাংশে পৌঁছালেও এর পরের বছরেই তা কমে দাঁড়ায় ৫ দশমিক ১ শতাংশে। ২০১১-১২ সালে এ খাতের প্রবৃদ্ধি কমে প্রায় অর্ধেকে নেমে এসে ২ দশমিক ৫ শতাংশে দাঁড়ায়। ২০১২-১৩ সালে তা আরো কমে দাঁড়ায় ২ দশমিক ১৮ শতাংশে।
প্রোব/শর/জাতীয়/ ২ এপ্রিল ২০১৪

২ এপ্রিল ২০১৪ | জাতীয় | ২০:১৪:৫৬ | ১৭:০১:৩২

জাতীয়

 >  Last ›