A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

ন্যাটো-রাশিয়া দ্বন্দ্ব চরমে: তাতারদের পুনর্বাসনের আশ্বাস পুতিনের | Probe News

Cremia3.JPGপ্রোবনিউজ, ডেস্ক: রাশিয়ার সঙ্গে সব ধরনের সামরিক ও বেসামরিক সহযোগিতা স্থগিত করেছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো জোট। ইউক্রেনের সাবেক প্রজাতন্ত্র ক্রিমিয়ায় অনুষ্ঠিত গণভোটের পর রুশ ফেডারেশনে এটির অন্তর্ভূক্তির প্রতিবাদে এ ব্যবস্থা নিল ন্যাটো। ব্রাসেলসে ন্যাটোভুক্ত দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের দু’দিনব্যাপী বৈঠকের প্রথমদিন মঙ্গলবার এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সংস্থাটির মহাসচিব আন্দ্রেস ফগ রাসমুসেন বলেছেন, ক্রিমিয়াকে রাশিয়ার ভেতর একীভূত করে নেয়ার বিষয়টি একটি প্রজন্মের জন্য ইউরোপের নিরাপত্তাকে মারাত্মকভাবে হুমকিগ্রস্ত করে তুলেছে। কাজেই রাশিয়ার সঙ্গে আর কোনো স্বাভাবিক বাণিজ্য বা লেনদেন হবে না। আগে রাসমুসেন এ খবরের সত্যতা দৃঢ়তার সঙ্গে অস্বীকার করেন যে, ইউক্রেন সীমান্ত থেকে রাশিয়া তার সৈন্য সরিয়ে নিচ্ছে; যদিও এর আগে খোদ ইউক্রেনের পাশ্চাত্যপন্থী অন্তর্বর্তী সরকার সেরকম খবর দিয়েছিল।

এরআগে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ক্রিমিয়া বিষয়ক এক অনানুষ্ঠানিক বৈঠক বর্জন করে রাশিয়া। দেশটি বলেছে, ক্রিমিয়া বর্তমানে রাশিয়ার অবিচ্ছেদ্য অংশ; কাজেই এ বিষয়ে নিরাপত্তা পরিষদে কোনো আলোচনা হতে পারে না। লিথুয়ানিয়ার উদ্যোগে সোমবার ক্রিমিয়ার সংখ্যালঘু তাতার জনগোষ্ঠীর ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনার জন্য নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকটি ডাকা হয়। ক্রিমিয়ার মানবাধিকার পরিস্থিতি এবং গণমাধ্যমে স্বাধীনতার বিষয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়। এ সম্পর্কে জাতিসংঘে নিযুক্ত রুশ মিশন বলেছে, ইউক্রেনের চলমান ‘বিপর্যয়কর পরিস্থিতি’ থেকে বিশ্ববাসীর দৃষ্টি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য এ ধরনের বৈঠক ডাকা হয়েছে। এ ছাড়া, ক্রিমিয়ার মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে যেসব কথা বলা হয়েছে তা ‘মিথ্যা তথ্যে ভরা প্রচারণা’ বলেও উল্লেখ করেছে মস্কো। রুশ মিশন বলেছে, জাতিসংঘের সবচেয়ে শক্তিশালী পরিষদের অবস্থান ও ভাবমর্যাদা ক্ষুণ্ন করা হয়েছে এ বৈঠকের মাধ্যমে। তবে জাতিসংঘে নিযুক্ত লিথুয়ানিয়ার উপ-পরাষ্ট্রদূত রিতা কাজারাগিয়েন রাশিয়ার এ সমালেচনা প্রত্যাখ্যান করে বলেন, রাশিয়ায় যোগ দেয়ার জন্য সম্প্রতি ক্রিমিয়ায় যে গণভোট হয়েছে তা ‘অবৈধ’।

তবে জাতিসংঘের বৈঠক বর্জন করলেও তাতার জনগোষ্ঠীকে নিয়ে নিজেরে অবস্থান জানিয়েছে রাশিয়া। প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ক্রিমিয়ার তাতার জনগোষ্ঠীর পুনর্বাসনের বিষয়টি বিবেচনা করার আশ্বাস দিয়েছেন। রাশিয়ার ভলগা অঞ্চলের তাতারস্তান প্রজাতন্ত্রের প্রেসিডেন্ট রুস্তম মিন্নিখানোভ মঙ্গলবার মস্কোয় রুশ প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে পুতিন ওই আশ্বাস দেন। সম্প্রতি ক্রিমিয়ায় অনুষ্ঠিত গণভোটের জের ধরে প্রজাতন্ত্রটি রাশিয়ায় যোগ দেয়ার পর ক্রিমিয়া সফর করেছেন মিন্নিখানোভ। পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাতে তিনি ক্রিমিয়ার তাতার জনগোষ্ঠীকে ‘অবদমিত জনগোষ্ঠী’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার অনুরোধ জানান। ১৯৯০-এর দশকের এক রুশ আইন অনুযায়ী সেদেশের অবদমিত বা নির্যাতিত জনগোষ্ঠী পুনর্বাসনের সুযোগ পাবে।

এদিকে ইউক্রেনের পার্লামেন্টে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনীর সঙ্গে ধারাবাহিক যৌথ সামরিক মহড়া চালানোর বিষয়টি অনুমোদন করেছে। মঙ্গলবার পার্লামেন্টের এ সংক্রান্ত বিল ২৩৫-০ ভোটে পাস হয়। ভোটাভুটির পর দেশটির ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী মিখাইলো কোভাল বলেছেন, “এটি আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়নের একটি ভালো সুযোগ।” এ বিল অনুযায়ী ন্যাটোর সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়া অনুষ্ঠিত হলে ক্রিমিয়া উপদ্বীপে মোতায়েন রুশ সেনাবাহিনীর একেবারে কাছাকাছি চলে যাবে মার্কিন সেনারা।

ক্রিমিয়া রাশিয়ায় একীভূত হয়ে যাওয়ার পর ইউক্রেন সীমান্তে মস্কো প্রায় ৪০,০০০ সেনা মোতায়েন করেছে বলে দাবি করেছে আমেরিকা। রাশিয়া বলছে, পূর্ব-পরিকল্পিত সামরিক মহড়া করার জন্য এসব সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। কিন্তু পশ্চিমা সূত্রগুলো দাবি করছে, এসব সেনা কোনো মহড়ায় অংশ নিচ্ছে না বরং চুপচাপ কোনো নির্দেশের অপেক্ষায় রয়েছে। এ ছাড়া, দীর্ঘদিনের জন্য এসব সৈন্যর রসদ সরবরাহ লাইন প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ব্রাসেলসে ন্যাটো জোটের ২৮ সদস্যদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক থেকে রুশ ফেডারেশনে ক্রিমিয়ার অন্তর্ভূক্তিকে ‘অবৈধ’ বলে প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। সেইসঙ্গে রাশিয়ার সঙ্গে সব রকম সহযোগিতা স্থগিত রাখার কথা বলা হলেও মস্কোর সঙ্গে সংলাপ চালিয়ে যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী জুনে পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের পরবর্তী বৈঠকে সহযোগিতা স্থগিত রাখার বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করা হবে।

প্রোব/বান/আন্তর্জাতিক ০২.০৪.২০১৪

 

 

২ এপ্রিল ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ১১:০৫:৪০ | ১৫:১৪:২৮

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›