A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

ড্রোন দিয়ে ফেসবুকের ইন্টারনেট সেবা | Probe News

প্রোব নিউজ, ডেস্ক: ড্রোনের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী ইন্টারনেট সেবা সরবরাহের পরিকল্পনা করছে শীর্ষ সামাজিক যোগাযোগ সাইট ফেসবুক। আরো বেশকিছু প্রযুক্তি কোম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে এ সেবা প্রদান করা হতে পারে। গত বৃহস্পতিবার ফেসবুকের সহপ্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ এক বিবৃতিতে এ পরিকল্পনা প্রকাশ করেন। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।
আজকাল ইন্টারনেট সেবা ছাড়া উন্নত জীবনের কথা চিন্তাই করা যায় না। পড়ালেখা থেকে শুরু করে চাকরিক্ষেত্র, গবেষণাসহ প্রায় প্রতিটি কাজেই ইন্টারনেটের প্রয়োজন। আবার বিশ্বের সেবা খাতগুলো ক্রমেই ইন্টারনেটের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে। ফলে ইন্টারনেট প্রাত্যহিক জীবনের একটি জরুরি অনুষঙ্গে পরিণত হয়েছে।
কিন্তু এ অতি প্রয়োজনীয় অনুষঙ্গটি বিশ্বের অনেক অঞ্চলেই বিরল। এ সেবাকে সর্বজনীন করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন মার্ক জাকারবার্গ। তার পরিকল্পনা অনুযায়ী চালকবিহীন উড়োজাহাজ ‘ড্রোনের’ মাধ্যমে বিশ্বের প্রায় প্রতিটি অঞ্চলে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেয়া সম্ভব। এ বিষয়ে ফেসবুকে নিজের প্রোফাইলে জাকারবার্গ বলেন, ‘বিশ্বের প্রতিটি অঞ্চলকে ইন্টারনেট সেবার আওতায় আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। আকাশ থেকে ইন্টারনেট সেবা গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি।’
জাকারবার্গের পরিকল্পনা অনুযায়ী, বিশ্বের প্রায় প্রতিটি অঞ্চলেই অসংখ্য ড্রোন ছড়িয়ে দেয়া হবে। এ ড্রোনগুলো নিজ নিজ এলাকায় ইন্টারনেট সেবা সরবরাহ করবে। তবে এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হলে দীর্ঘ সময় উড়তে পারে— এমন ধরনের ড্রোনের প্রয়োজন হবে।
যুক্তরাজ্যভিত্তিক কোম্পানি অ্যাসেন্টা একটি বিশেষ ড্রোন তৈরি করেছে, যা দীর্ঘ সময় আকাশে উড়তে সক্ষম। ড্রোনটি দীর্ঘ সময় আকাশে উড়ার ক্ষেত্রে বিশ্বরেকর্ড করেছিল। অ্যাসেন্টার প্রতিষ্ঠাতারা ফেসবুকের ইন্টারনেট সেবা সরবরাহের এ প্রকল্পে কাজ করবে বলে জানান জাকারবার্গ। এছাড়া মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসা ও অ্যামেস রিসার্চ সেন্টারের মতো শীর্ষ প্রতিষ্ঠানগুলোর বেশকিছু বিশেষজ্ঞ ফেসবুকের এ প্রকল্পে কাজ করবেন।
অ্যাসেন্টার মতো প্রতিষ্ঠানের বিশেষজ্ঞদের নিজেদের দলে পাওয়ায় দীর্ঘ সময় ধরে আকাশে উড়তে সক্ষম ড্রোন তৈরিতে ফেসবুকের কোনো ধরনের বেগ পেতে হবে না বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। ফেসবুক তাদের ইন্টারনেট ডট ওআরজি প্রকল্পের মাধ্যমে গ্রাহকদের ইন্টারনেট সরবরাহ করবে। ইন্টারনেট ডট ওআরজি মূলত ফেসবুক ও ছয়টি মোবাইল কোম্পানির মধ্যে যৌথ চুক্তির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়। এ ছয়টি মোবাইল কোম্পানি হচ্ছে স্যামসাং, এরিকসন, মিডিয়া টেক, নকিয়া, অপেরা সফটওয়্যার ও কোয়ালকম। এ প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে চুক্তির থাকার কারণে ফেসবুক অনেকটা সাশ্রয়ী মূল্যেই ফেসবুক গ্রাহকদের ইন্টারনেট সেবা সরবরাহ করতে পারবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।
নিরীহ মানুষ হত্যা থেকে শুরু করে অনেক নেতিবাচক কাজেই ড্রোন ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে এ প্রযুক্তি সাইবার হামলার ক্ষেত্রেও ব্যবহার হচ্ছে। কিন্তু কথায় আছে প্রতিটি মুদ্রার দুটি পিঠ। একটি মন্দ হলে আরেকটি ভালো হবেই। ড্রোন যে শুধু নেতিবাচক কাজেই বেশি ব্যবহার হয়েছে তা নয়। বিভিন্ন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান এ প্রযুক্তির মাধ্যমে গ্রাহকদের পণ্য সরবরাহ করার কথা ভাবছে। এবার ফেসবুক যদি ড্রোনের মাধ্যমে ইন্টারনেট সেবা সরবরাহ করতে পারে, তবে ড্রোনের ইতিবাচক ব্যবহারের জন্য এটি মাইলফলক হয়ে থাকবে।
জাকারবার্গের ভাষ্য অনুযায়ী ড্রোনের মাধ্যমে এ ইন্টারনেট সেবার গতিও তুলনামূলক বেশি হবে। বিশেষ তরঙ্গের মাধ্যমে এ ইন্টারনেট সেবা গ্রাহকদের সরবরাহ করা হবে। তবে নিরবচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সেবার জন্য কোনো একটি ড্রোনকে কম করে হলেও এক মাস আকাশে উড়তে হবে। ফেসবুক অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে মিলে দীর্ঘ সময় উড়তে সক্ষম এ ধরনের ড্রোন তৈরির চেষ্টা করে যাচ্ছে।
এ ধরনের ইন্টারনেট সংযোগের ক্ষেত্রে সাইবার নিরাপত্তা একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বব্যাপী সাইবার হামলার পরিমাণ ও পরিধি উভয়ই বৃদ্ধি পেয়েছে। আকাশে উড়ন্ত এসব ড্রোন কতটা নিরাপদে গ্রাহকদের ইন্টারনেট সেবা সরবরাহ করতে পারবে, তাতে সংশয় প্রকাশ করেছেন সাইবার নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা। তবে এ বিষয়ে জাকারবার্গ জানান যে, তাদের এ ইন্টারনেট সেবা যথেষ্ট নিরাপদ থাকবে। উচ্চপ্রযুক্তির মাধ্যমে এ ব্যবস্থার সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
শুধু যে ফেসবুকই আকাশ থেকে বিশ্বব্যাপী গ্রাহকদের ইন্টারনেট সেবা সরবরাহের পরিকল্পনা করছে তা নয়। শীর্ষ সার্চ ইঞ্জিন গুগলের সহপ্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ ও সার্জে ব্রিনও আকাশ থেকে গ্রাহকদের ইন্টারনেট সেবা সরবরাহে আগ্রহ দেখিয়েছেন। গত বছর গুগল ‘প্রজেক্ট লুন’ নামের একটি প্রকল্প চালুর ঘোষণা দেয়। এ প্রকল্পের অধীনে বেশকিছু বেলুনের মাধ্যমে গুগল গ্রাহকদের ইন্টারনেট সেবা সরবরাহের পরিকল্পনা করে। গ্রাহকরা তাদের বাসার ছাদে বিশেষ অ্যান্টেনার মাধ্যমে অনেক উঁচুতে থাকা এ বেলুনগুলো থেকে ইন্টারনেট সেবা গ্রহণ করতে পারবেন বলে গুগলের পক্ষ থেকে জানানো হয়। বিশ্লেষকদের মতে, গুগল ও ফেসবুকের মতো প্রতিষ্ঠান যদি তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারে, তবে তা ইন্টারনেট খাতের জন্য মাইলফলক হয়ে থাকবে।
প্রোব/মুআ/আন্তর্জাতিক ২৯.০৩.১৪

২৯ মার্চ ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ১৮:০২:৪৬ | ১৩:৩৪:৪৫

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›