A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

কায়েদার ভিডিও বার্তা নিয়ে বিতর্ক | Probe News

প্রোব ২৪, ঢাকা: বাংলাদেশি মুসলমানদের জিহাদের আহবান জানিয়ে প্রচারিত আল কায়েদা প্রধানের ভিডিও বার্তা নিয়ে সরকার ও বিরোধী পক্ষের মধ্যে শুরু হয়েছে বিতর্ক। সরকারী দল আওয়ামী লীগের কোন কোন নেতা আল কায়েদা প্রধানের বার্তার সঙ্গে বিএনপির বক্তব্যের মিল রয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন। আর বিএনপির তরফে পুরো বিষয়টিকে বিশেষ মহলের কারসাজি বলে ইঙ্গিত করা হয়েছে। তবে পুলিশ বলছে তারা ভিডিও বার্তা নিয়ে তদন্তে নেমেছে
রোববার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, ‘২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরে হেফাজতে ইসলামের তান্ডবের পর বিএনপি-জামায়াত যে সুরে কথা বলেছে, জাওয়াহিরিও একই ভাষায় কথা বলেছেন। নির্বাচন বানচাল ও নাস্তিকদের নির্মূলের নামে তারা আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র করেছে, জাওয়াহিরির বক্তব্যে সেটাই প্রমাণিত হয়েছে।’
এদিকে ছাত্রলীগের নেতারা বলেছেন, ‘ ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই আল-কায়েদা বাংলাদেশের মানুষকে ‘ইসলাম বিরোধীদের’ বিরুদ্ধে প্রতিরোধের ডাক দিয়েছে।’
AL Quada 1ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ এক সমাবেশে অভিযোগ করেন, ‘দেশীয় ষড়যন্ত্রে ব্যর্থ হয়ে বিদেশি জঙ্গিদের সহায়তায় খালেদা জিয়া ও তাঁর সন্তান তারেক রহমান দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছেন। সেই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতায় আল-কায়েদাকে ভাড়া করে ভিডিও বার্তা দেওয়া হয়েছে।’
এ প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য জেনারেল মাহবুবুর রহমান (অব.)  আওয়ামী লীগ নেতা হাছান মাহমুদের বক্তব্যকে  রাবিশ আখ্যায়িত করে  প্রোব টোয়েন্টিফোর ডট কম- কে বলেন,   ‘দেশে জঙ্গিবাদের উত্থান হলে বিএনপি তা সহ্য করবে না। বিএনপি আগেও জঙ্গি ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কাজ করেছে। ধর্মীয় সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় এনে বিচার ও শাস্তির ব্যবস্থা করেছে। তাই জঙ্গিদেও বিরুদ্ধে বিএনপি’র অবস্থান স্পষ্ট। এ নিয়ে ঘোলা পনিতে মাছ শিকারের কোন সুযোগ নেই।’  
তিনি বলেন,  ‘ধর্মকে ভুল পথে পরিচালিত করে তারা ইসলামের চরম ক্ষতি করছে। তারপরও বলবো, দেশে যদি জঙ্গিদের উত্থান ঘটে তবে দেশবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাদের প্রতিরোধ করবে বলে মনে করি।’
হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী   বলেন, “আল-কায়েদা বা জাওয়াহিরির নাম বলে যে অডিও বার্তা প্রচার করা হচ্ছে তা ষড়যন্ত্র বলে আমাদের মনে হচ্ছে। এর সাথে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই।”
এদিকে হেফাজতে আমির শাহ আহমদ শফী ও মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরীর নামে পাঠানো এক বিবৃতিতে জাওয়াহিরি বা আল-কায়েদাকে সাম্রাজ্যবাদী শক্তির সৃষ্টি উল্লেখ করা হয়।
এতে বলা হয়, “কে বা কারা কোন উদ্দেশ্যে এই অডিও বার্তা প্রচার করেছে তা আমাদের জানা নেই। আমাদের সন্দেহ দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বসহ দেশের মুসলমানদের বিরুদ্ধে নতুন ষড়যন্ত্র হতে পারে।”
তবে এ প্রসঙ্গে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষিকা প্রফেসর দিলারা চৌধুরী মনে করেন, ‘এ ধরনের ভিডিও বার্তার মাধ্যমে দেশের মূল সমস্যা আড়াল করে বিশেষ মহল মিডিয়া ও জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন পথে চালিত করার চেষ্টা করতে পারে। তাছাড়া ভিডিও বার্তাটি আদৌ সত্য কিনা, সেটাও প্রমাণের দাবি রাখে।’
প্রোব টোয়েন্টিফোর ডট কম/আপা/১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৪/১৬:০৯ ঘন্টা

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ | জাতীয় | ১৬:৫০:৩৪ | ০৮:১৩:১৮

জাতীয়

 >  Last ›