A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

মোদিকে কেটে টুকরো টুকরো করতে চাওয়া কংগ্রেস নেতা গ্রেপ্তার | Probe News

modiপ্রোবনিউজ, ডেস্ক: নির্বাচনী বক্তব্যে বিজেপি নেতা নরেন্দ্র মোদিকে হত্যার হুমকির পর কংগ্রেস প্রার্থী ইমরান মাসুদকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার প্রথম প্রহরে উত্তর প্রদেশ পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে বলে ভারতীয় গণমাধ্যমে খবর এসেছে।
এক ভিডিওতে উত্তর প্রদেশের সাহারানপুর থেকে কংগ্রেস দলীয় প্রার্থী ইমরান মাসুদ (৪০) বিজেপি নেতা ও প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে উস্কানিমূলক বক্তব্য রাখতে দেখা যায়। ওই বক্তব্যের জন্য তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩ (এ), ২৯৫ (এ), ৫০৪ ও ৫০৬ ধারায় মামলা করা হয়। সাহারনপুর জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সন্ধিয়া তিওয়ারি জানিয়েছে, তারা ওই ভিডিও সংগ্রহ করেছেন, যা নিয়ে মাসুদের উস্কানিমূলক বক্তব্যের অভিযোগ উঠেছে। ভিডিউটি নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হয়েছে।
ভিডিওতে মাসুদকে বলতে শোনা যায়, “আমি রাস্তার ছেলে, মানুষের জন্য জীবন দিতে সব সময় প্রস্তুত আছি। আমি মৃত্যু কিংবা হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়াকে ভয় পাই না। “তিনি এটাকে গুজরাট ভেবে বসে আছেন। গুজরাটে আছে মাত্র ৪ শতাংশ মুসলিম। আর এখানে (উত্তর প্রদেশে) আছে ৪২ শতাংশ ভোট।” উত্তর প্রদেশে মোদির প্রার্থী হওয়ার প্রসঙ্গ তুলে ধরে মাসুদ বলেন, “তিনি যদি উত্তর প্রদেশের মুসলিমদের সঙ্গে গুজরাটের মতো ব্যবহার করার সাহস করেন তবে তারা তাকে কেটে কুটরো টুকরো করবে।”
ওই ব্ক্তব্যের জন্য মাসুদ ক্ষমা চেয়েছেন বলে এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে। তিনি বলেন, “আমি স্বীকার করছি- ওটা আমার ভুল হয়েছে। নির্বাচনকে সামনে রেখে এ ধরনের বক্তব্য দেয়া আমার ঠিক হয়নি।” তবে টাইমস অব ইন্ডিয়ার কাছে টেলিফোনে মাসুদ দাবি করেছেন তিনি বক্তব্যে কোনো আশালীন ভাষা ব্যবহার করেননি। তাই মামলা নিয়েও চিন্তিত নন।
“আমি কোনো বাজে ভাষা ব্যবহার করিনি। মোদির বিষয়ে আমি উদ্বেগের কথাই জানিয়েছি। আমি তার সম্পর্কে এবং তার কর্মকাণ্ড মানুষের কাছে তুলে ধরবো।” গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ৬৪ বছর বয়সী মোদি এবারের লোকসভা নির্বাচনে উত্তর প্রদেশের বারানাসি/বেনারসি আসন থেকে লড়ছেন। ‘নির্বাচনের মাধ্যমে তিনি উত্তর প্রদেশকে গুজরাটে পরিণত করছেন’ বলে সাবধান করেন কংগ্রেস নেতা মাসুদ।
নির্বাচনের আগে ভারতের গণমাধ্যমগুলোতে পরিচালিত জনমত জরিপে নরেন্দ্র মোদিকে এগিয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। তবে ২০০২ সালে ভারতের গুজরাটে বড় রকমের সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার জন্য মোদির সমালোচনা করছেন তার বিরোধীরা। অবশ্য ওই দাঙ্গায় মোদির কোনো সংশ্লিষ্টা নেই বলে রায় দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।
এদিকে মোদিকে নিয়ে মাসুদের বক্তব্যে বিব্রত স্বয়ং কংগ্রেস।
প্রোব/বান/আন্তর্জাতিক ২৯.০৩.২০১৪

২৯ মার্চ ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ১১:১৭:০৬ | ১৪:০৩:০১

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›