A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

মৃত্যুদন্ডের ৪৬ বছর পর মামলার পুনর্বিচার! | Probe News

Japan.jpgপ্রোব নিউজ, ডেস্ক: জাপানে মৃত্যুদন্ড পাওয়ার ৪৬ বছর পর ইয়াও হাকামাদা নামের এক ব্যক্তির মামলা পুনর্বিচারের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। ১৯৬৮ সালে মনিব, মনিবের স্ত্রী ও তাদের দুই সন্তানকে হত্যার দায়ে মৃত্যুদন্ড পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু আইনি জটিলতার কারণে দীর্ঘ ৪৬ বছর ধরে তার মৃত্যুদন্ড ঝুলে ছিল।
হত্যাকান্ডের পর ২০ দিন ধরে সাবেক মুষ্টিযোদ্ধা হাকামাদাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। পরে নির্যাতনের মুখে অপরাধ স্বীকার করেছেন উল্লেখ করে আদালতে তিনি তার জবানবন্দি প্রত্যাহার করে নেন। তারপরও পুলিশের কাছে দেয়া স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে হাকামাদাকে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়। চার দশকেরও বেশি সময় ধরে কারাগারে থাকা হাকামাদার বয়স বর্তমানে ৭৮ বছর। মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মতে হাকামাদা হচ্ছেন একমাত্র ব্যক্তি যিনি মৃত্যুদন্ড পাওয়ার পরও দীর্ঘ সময় ধরে বেঁচে আছেন।
১৯৬৬ সালে একটি সয়াবিন প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানায় নৃশংসভাবে ছুরিকাঘাতে সপরিবারে নিহত হন ওই কারখানার মালিক। মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত হাকামাদা সে সময় ওই কারখানায় কাজ করতেন। তবে এখন তার আইনজীবীরা আদালতের সামনে একথা প্রমাণ করতে পেরেছেন যে, ওই হত্যাকান্ডের ঘাতকের পোশাকে যার ডিএনএ রয়েছে তিনি হাকামাদা নন। ১৯৬৬ সালে যে তিন বিচারক হাকামাদার মৃত্যুদন্ড ঘোষণা করেছিলেন তাদের মধ্যে এখনও বেঁচে থাকা এক বিচারক বলেন, সে সময় তারও মনে হয়েছিল হাকামাদা নির্দোষ।
পরে তার মামলাটি পুনর্বিচারের নির্দেশ দেয় আদালত।
মানবাধিকার সংগঠনগুলোর মতে জাপানে প্রায়ই জিজ্ঞাসাবাদের সময় নির্যাতনের মাধ্যমে জোর করে সন্দেহভাজনদের কাছ থেকে স্বীকারোক্তি আদায় করে নেয়া হয়। এতে অনেক নির্দোষ ব্যক্তিরা ফেঁসে যান।
প্রোব/ফাউ/ডেস্ক/২৭.০৩.২০১৪

 

২৭ মার্চ ২০১৪ | আন্তর্জাতিক | ১৬:১০:৫৭ | ১৮:০৩:২৩

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›