A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

১২ বছরে ৯৮ বিয়ে | Probe News

94 wife- S Case 27.10.2015১২ বছরে ৯৮ বিয়ে

প্রোবনিউজ, ডেস্ক: ফ্রান্স থেকে ফিনল্যান্ড, জাপান থেকে জার্মান- আমেরিকা থেকে আর্জেন্টিনা। অ্যামি, অ্যানি, মারিয়া, মেরি, কেট, কুইন্স কত নামের স্ত্রী যে আছে, সবার নাম হয়তো মনেই নেই তার। তবুও বিয়ের শখ মেটেনি। আর এই বিয়ের শখ থেকেই যুক্তরাজ্যের নাগরিক জন অ্যাড্রেস এখন ৩৪টি দেশের জামাই! সেই ২৩ বছর বয়স থেকে বিয়ের ইনিংস শুরু তার। ৩৫ বছরে এসে করেছেন অপরাজিত ৯৪! ছয় মাস আগে জাপানে সর্বশেষ বিয়েটি করেন। এই কথা শুনে দ্য ইনডিপেনডেন্টের প্রতিবেদকের প্রশ্ন, সংখ্যায় বিয়ের সেঞ্চুরি করবেন কবে? জন কিন্তু লাজুক হেসে সেঞ্চুরির ব্যাপারটা এড়িয়ে গেছেন। তবে মুখের লাজুক হাসি ধরে রেখেই জন জানালেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মহিলাদের বিয়ে করাটা তাঁর শখ। তবে এই বিয়ে করার জন্য কারো কাছে মিথ্যা বলেন না জন। কোথাও কোনো লুকাছাপার গল্প নেই। ৯৪ জন স্ত্রীই জানেন তাঁদের আরো ৯৩ জন সতীন আছেন! কিন্তু এত মেয়েকে পটানোর কঠিন কাজটি কীভাবে সম্ভব হলো ? জনের জবাব, ‘আমি দেখতে খুব একটা খারাপ নই। আর ‘প্রেমটাও’ ভালো পারি। আর এভাবেই দেশে দেশে জুটিয়ে ফেলি বান্ধবী, পরে প্রেম। আর তারপর বিয়ে!’ জনের দাবি, তিনি কাউকে ঠকাননি। অন্তত প্রেমের বিষয়ে তো নয়ই। বিয়ের আগে নিজের আগের সব প্রেম-পরিণয়ের কথা জানিয়ে দেন। কিন্তু প্রশ্ন হলো সবচেয়ে বেশি সময় জন কোন স্ত্রীর সঙ্গে কাটান? জন নিজেই বলেছেন, জার্মান স্ত্রী আনার সঙ্গে। আনাও ছবি আঁকেন। তবে অল্প একটু দুঃখও আছে জনের। এতজন ভালোবাসার মানুষের মধ্যে বছরে বড়জোড় পাঁচ থেকে ছয়জন স্ত্রীর সঙ্গে দেখা হয় তাঁর। অনেকেই আবার তাঁকে ডিভোর্স দিয়ে নতুন করে সংসার পেতেছেন। কেউ হয়তো তাঁর কথা বেমালুম চেপে গেছেন নতুন স্বামী পেয়ে। তবু দুঃখ নেই জনের মনে। সেই নির্দিষ্ট সময়ে তাঁর জন্য ‘স্ত্রীর’ ভালোবাসা তো সত্যি ছিল। এটুকু ভেবেই আত্মতৃপ্তির জাবর কাটেন ৯৪ স্ত্রীর স্বামী জন অ্যাড্রেস।

প্রোব/পি/আন্তর্জাতিক/২৭.১০.২০১৫

 

২৭ অক্টোবর ২০১৫ | আন্তর্জাতিক | ১১:৫৭:১৫ | ১১:৫৭:৫২

আন্তর্জাতিক

 >  Last ›