A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Only variable references should be returned by reference

Filename: core/Common.php

Line Number: 257

ভারতীয় গোয়েন্দাদের ধারণা, আইএস সমর্থকরাই সিজারের ঘাতক | Probe News

ভারতীয় গোয়েন্দাদের ধারণা, আইএস সমর্থকরাই সিজারের ঘাতক

প্রোবনিউজ, ডেস্ক: ঢাকায় ইতালিয়ান সাহায্যকর্মী সিজার তাবেলাকে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস ভাবাদর্শে অনুপ্রাণিত সমর্থকরা হত্যা করে থাকতে পারে। ওই হত্যাকারীরা আইএস-এর সক্রিয় সদস্য না-ও হতে পারে। এমনটিই ধারণা করছে ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলো। চেজার তাবেলাকে অনুসরণ করে হত্যা করার যে দাবি আইএস করেছে, তাতেও বিস্মিত ভারতের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো। এ খবর দিয়েছে ভারতীয় দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়া। এক জ্যেষ্ট ভারতীয় গোয়েন্দা কর্মকর্তা পত্রিকাটিকে বলেন, বাংলাদেশে আইএস-এর সরাসরি উপস্থিতির বিষয়ে কোনো নিরেট প্রমাণ নেই। কিন্তু দেশটিতে উদ্বেগজনক মাত্রায় উগ্রপন্থী গোষ্ঠীর বিস্তার ঘটছে, যারা সন্ত্রাসবাদের পরিষ্কার হুমকি তৈরি করছে। ইতালিয়ান নাগরিকের হত্যাকা-ের ঘটনাটি হয়তো আইএস-এর প্রতি সহানুভূতিশীল কারো একাকী বিচ্ছিন্ন হামলা।

ওই কর্মকর্তা ভারতেও এ ধরণের হামলার আশঙ্কা উড়িয়ে দেননি। ভারতে অনেক তরুণের মধ্যে আইএস-এর প্রতি আগ্রহ দেখা গেছে। অনলাইনেও আইএস-এর প্রতি সমর্থন দিতে দেখা গেছে কিছু তরুণকে। সিরিয়া ও ইরাকে আইএস-এর নিয়ন্ত্রণাধীন এলাকায় বর্তমানে প্রায় ১০ ভারতীয় তরুণ রয়েছে। ২৫-৩০ তরুণ এ জঙ্গি সংগঠনে যোগ দেয়ার চেষ্টা চালিয়ে গোয়েন্দাদের তৎপরতায় ব্যর্থ হয়েছে। সম্প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ১০ তরুণকে কেরালায় ফেরত পাঠানো হয়েছে। সিরিয়ায় আইএস-এর সক্রিয় সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল তাদের।
এক জ্যেষ্ট কর্মকর্তা বলেন, আইএস-এর সহিংস চরমপন্থী মতাদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে মৌলবাদী ব্যাক্তি বা গোষ্ঠীবিশেষের হামলার পরিষ্কার আশঙ্কা রয়েছে। ভারতে এদের অনেকেই বিচ্ছিন্ন হামলা চালানোর চেষ্টা করছে। গোয়েন্দা সংস্থাগুলো সতর্ক রয়েছে। এ ধরণের সন্দেহজনক ব্যাক্তি বা গোষ্ঠীবিশেষকে সক্রিয়ভাবে অনুসরণ করা হচ্ছে। বিশেষ করে তাদের অনলাইন বার্তা আদানপ্রদানের দিকে নজর রাখা হচ্ছে। ইরাক ও সিরিয়ায় গমন কিংবা আইএস-এ যোগদানের লক্ষ্মণ দেখা যাওয়া মাত্রই গোয়েন্দা সংস্থাগুলো হস্তক্ষেপ করছে।

ঢাকায় এ ধরণের একাকী হামলার ঘটনায়, ভারতেও একই ধরণের হামলা ঘটার আশঙ্কাকে আরও যুক্তিযুক্ত করেছে। কিন্তু আইএস যেভাবে তাদের হাতে আটক বিদেশীদের হামলা চালায়, ঠিক সেভাবে ইতালিয়ান কর্মীকে ঢাকায় হত্যা করা হয়নি। এটিও গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সন্দেহের অন্যতম কারণ যে, আইএস-এর সক্রিয় সদস্যরা এ হামলায় সরাসরি জড়িত না থাকলেও, আইএস-এর মতবাদে অনুপ্রাণিত হয়ে কেউ এ হামলা চালিয়েছে।

প্রোব/পি/দক্ষিণ-এশিয়া/০১.১০.২০১৫

 

১ অক্টোবর ২০১৫ | দক্ষিণ এশিয়া | ১৬:২৪:৩৮ | ১০:১২:৫৫

দক্ষিণ এশিয়া

 >  Last ›